মুসলিম বিশ্ব সুন্দরী ফাতমা

প্রকাশ:| সোমবার, ২৪ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৬:০৪ অপরাহ্ণ

51649_x2বিকিনি পরে শরীর দেখিয়ে যেসব সুন্দরী প্রতিযোগিতা হয় তা এড়িয়ে নতুন এক অধ্যায় রচনা হয়েছে ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানে অনুষ্ঠিত হলো ওয়ার্ল্ড মুসলিমাহ অ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতা। পরিশীলিত পোশাক পরে এতে অংশ নেন প্রতিযোগীরা। এতে মুসলিম বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট জিতেছেন তিউনিসিয়ার যুবতী। তার নাম ফাতমা বেন গুয়েফ্রাচ। তার বয়স ২৫ বছর। তিনি পেশায় একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী।

এ প্রতিযোগিতায় ১৮ জন ফাইনালিস্টকে টপকে সেরার খেতাব জেতেন তিনি। পুরস্কার হিসেবে তিনি পেয়েছেন একটি স্বর্ণের ঘড়ি, স্বর্ণের ডিনার সেট ও কাবাঘরের একটি প্রতিকৃতি। উচ্ছ্বসিত ফাতমা বলেন, আল্লাহর সহায়তায় আমি এত দূর এসেছি। আমার চাওয়া হলো একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র এবং সিরিয়ার মানুষের মুক্তি। প্রতিযোগীদের মধ্যে কম্পিউটার বিজ্ঞানী এবং ডাক্তারের মতো পেশাজীবী তরুণী ও যুবতীও ছিলেন। ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সী নারীদের জন্যই এ প্রতিযোগিতা উন্মুক্ত ছিল।

নিয়ম অনুযায়ী প্রতিযোগীদের সবার মাথায় ছিল স্কার্ফ। বিচারকরা শুধু চেহারা বা সৌষ্ঠব দেখেই শ্রেষ্ঠ সুন্দরী নির্বাচন করেননি। তারা কতটা নির্ভুলভাবে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করতে পারেন সে পরীক্ষাও দিতে হয়। এ ছাড়া ইসলাম ও আধুনিক বিশ্ব সম্পর্কে তাদের জানাশোনার পরিধিও ছিল বিচার্য বিষয়।

মূলত পশ্চিমাদের মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় নারীদের বিকিনি পরিয়ে উপস্থাপন করার প্রতিবাদ হিসেবে এ প্রতিযোগিতার উদ্যোগ নেয়া হয়। আয়োজকদের একজন জামেয়াহ শেরিফ বলেন, আমরা দেখতে চেয়েছিলাম তারা ইসলামি জীবনাচার সম্পর্কে কতটা ওয়াকিবহাল। জানতে চেয়েছি তারা কি খান, কি পরেন এবং কিভাবে জীবন কাটান।