‘‘মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা বাঙালি জাতি সত্তার আদর্শিক মঞ্ ‘’

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর , ২০১৫ সময় ০৭:১৬ অপরাহ্ণ

জাতি সত্ত্বা
নগরীর আউটার স্টেডিয়ামে হাজার হাজার নারী-পুরুষ ও সব বয়সী মানুষের আনন্দ ঘন উপস্থিতিতে উৎসবমুখর পরিবেশে আজ রাতে ২৭ তম মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধে বিজয় মেলার সফল পরিসমাপ্তি ঘটল। এই উপলক্ষে আজ বিকেলে মেলা প্রাঙ্গনে এক সমাপনী অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী প্রধান অতিথির ভাষণে বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা বাঙালি জাতিসত্তা, ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও সংস্কৃতি সুরক্ষার আদর্শিক মঞ্চ। এই বিজয় মেলা বাঙালিকে ঐক্যবদ্ধ থাকার প্রেরণা যুগিয়েছে এবং মুক্তিযুদ্ধের অবিনাশী চেতনাকে প্রজন্ম পরমপরায় ধারণ করে আসছে। তিনি আরও বলেন, আমাদের গর্বিত অতীতকে ধারণ করে বর্তমানকে সমৃদ্ধ করে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। এই এগিয়ে যাওয়ার শক্তি মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা। তিনি এই মেলায় অংশগ্রহণকারী দেশের নানা প্রান্ত থেকে আসা ব্যবসায়ী শিল্প উদ্যোক্তা, চারু ও কারুপন্য উৎপাদক এবং দেশীয় ও বিদেশী পণ্য বিক্রেতাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আপনারাই এই আয়োজনের প্রধান উপকরণ। আগামীতেও আপনাদের অংশগ্রহণ আমাদেরকে প্রাণিত করবে। আমাদের মধ্যে কোন ব্যবসায়ী মনোবৃত্তি নেই। ক্রেতারা এখানে স্বল্প মূল্যে তাদের কাঙ্খিত পণ্যটি পেয়ে থাকেন বলে সারা বছর এই মেলার জন্য তারা মুখিয়ে থাকেন। তাই এই মেলা সর্বস্তরে জনগণের সত্বস্বপূর্ত অংশগ্রহণে আকর্ষণের কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে।
মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের কো চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর চৌধুরী সিএনসি স্পেশাল এর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব মো: ইউনুছ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কো চেয়ারম্যান অমল মিত্র, মুক্তিযোদ্ধা পান্টু লাল সাহা, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ, মেলার তত্ত্বাবধায়ক হাজী সাহাবুদ্দিন, সাজেদুল আলম মিল্টন এবং মেলায় অংশগ্রহণকালী স্টল মালিকদের পক্ষে এম আরমান প্রমুখ। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয় মেলায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন ক্যাটাাগরির সেরা স্টলের জন্য মালিকদের হাতে সম্মাননা ও ক্রেষ্ট তুলে দেন মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী।


আরোও সংবাদ