মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাস ছড়িয়ে দিতে হবে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৪ মার্চ , ২০১৭ সময় ১০:৪৯ অপরাহ্ণ

পূর্বাশার আলো’র কথোপকথনে ডা.মাহফুজুর রহমান
আর্দশ শিশু কিশোর সংগঠন পূর্বাশার আলোর উদ্যোগে গত ২৩শে মার্চ ২০১৭ইং চট্টগ্রামের কাপাসগোলা সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে “স্বাধীনতা ও আমাদের প্রজন্ম” শীর্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস গবেষক ডা. মাহফুজুর রহমানের সাথে শিক্ষার্থীদের সাথে একটি ভিন্নধর্মী কথোপকথন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
কাপাসগোলা সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুকুমার দেবনাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন বিষয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক প্রশ্নের উত্তর দেন বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষনা কেন্দ্র ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ডা.মাহফুজুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন লেখক ও সংগঠক আতিকুর রহমান আতিক।
পূর্বাশার আলোর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আবু নোমান রানার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের সম্পাদক এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের গণসংযোগ কর্মকর্তা মোঃ আব্দুর রহিম,বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, চট্টগ্রাম প্রাতিষ্ঠানিক কমান্ডের আহবায়ক ফজল আহমদ,প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও সাত্ত্বিকের সভাপতি সঞ্জয় বিশ্বাস,সমাজকর্মী শফিকুল ইসলাম রাহী, পূর্বাশার আলোর সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার,বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মিসেস নশাত বেগম কাতেবী,প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আফরোজা বিলকিস,কবি আসিফ ইকবাল,চিন্ময় দাশগুপ্ত,বোয়ালখালী উপজেলার সভাপতি সাইফুদ্দিন খালেদ,আকতার হোসেন,আবু জুবাইর রিয়াজ,আরমান হোসেন প্রমূখ।
স্মৃতিচারণপূর্বক কথোপকথনে ডা.মাহফুজুর রহমান বলেন, পাকিস্তানি শোষণের বিরুদ্ধে আমরা একটি রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে জেগে উঠেছিলাম।মহান মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলার কৃষক,শ্রমিক,মেহনতি জনতা,দেশপ্রেমিক সেনা সদস্যসহ আমরা ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম স্বাধীনতা সংগ্রামে। আমরা দেশপ্রেমের তাগিদে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে তোমাদের একটি স্বাধীন ভূখন্ড দিয়েছি। বাংলাদেশকে সুরক্ষা ও সমৃদ্বির দিকে এগিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব তোমাদের।মুক্তিযুদ্ধে সঠিক ইতিহাস প্রণয়ণ ও এর গৌরবময় ইতিহাসকে সর্বত্র ছড়িয়ে দিয়ে একটি স্বনির্ভর ও আলোকিত জাতি গঠনে নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে।
কথোপকথন অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর নির্যাতন, ১৯৪৭ সালে দ্বি-জাতি তত্ত্ব, অপারেশন সার্চলাইট, মুক্তিযুদ্ধে নৌ-পথে অপারেশন জ্যাকপট, বঙ্গবন্ধরু স্বাধীনতা ঘোষণা, কারাবন্দী জীবন, ভারতের সহযোগীতা, মুক্তিযুদ্ধের প্রশিক্ষণ, যুদ্ধের বিবরণ, যুদ্ধা পরাধীদের বিচার, অস্থায়ী সরকার গঠন, পাকিস্তানী বাহিনীর আত্মসমর্পন, অসহযোগ আন্দোলনসহ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ডা.মাহফুজুর রহমান। অনুষ্ঠান শেষে শ্রেষ্ঠ প্রশ্নকর্তাদের পুরস্কৃত করা হয়।


আরোও সংবাদ