মিল্লাত বাহিনীর সদস্যদের সাথে গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

প্রকাশ:| শনিবার, ৮ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ১০:৪৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার শীর্ষ সন্ত্রাসী খোরশেদ হোসেন মিল্লাত বাহিনীর সদস্যদের সাথে গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সকালে উপজেলার দক্ষিণ নিশ্চিন্তাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে সংঘর্ষের এ ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ২০ ব্যক্তি আহত হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার সকালে ওই বিদ্যালয়ের কাছে দক্ষিণ নিশ্চিন্তাপুর গ্রামের মো. নাছির নামের এক ব্যক্তিকে মিল্লাত বাহিনীর কয়েকজন সদস্য লাঞ্ছিত করে। বিষয়টি নিয়ে গ্রামের লোকজনের সাথে বাহিনীর একাধিক সদস্যদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ১০টার দিকে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসী এবং মিল্লাত বাহিনীর সদস্যদের মাঝে সংঘর্ষ বাধে।

এতে মিল্লাত বাহিনীর সদস্য- মো. এরশাদ (৩২), শাহিন (২১), শহীদ (৩৫), মাসুদ (২২), মামুন (৩২), হেলাল (২৮), রাশেল (৩২), দুলাল (২৮), বেলাল (৩১) এবং গ্রামবাসী মো. নাসির (৪৮), আবু তাহের (৫৫), ইউসুফ (৪৫), আলমগীর (৪৫), মো. জামাল (৫৫), এয়ার মোহাম্মদ (৩৭), মুনসুর (৫০), নুরুল হুদা (৫০) ও হুমায়ুন কবির গুরুতর আহত হন।

এদের মধ্যে মিল্লাত বাহিনীর সদস্য- এরশাদ, শাহিন ও শহীদকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং বাকিদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

ফটিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মফিজ উদ্দিন বাংলামেইলকে বলেন, ‘এখন পরিস্থিতি শান্ত। আহতদের চিকিৎসা শেষে মামলাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ফটিকছড়ির মিল্লাত বাহিনীর প্রধান উপজেলা যুবলীগ নেতা খোরশেদ হোসেন মিল্লাত (৪৬) গত ৩১ অক্টোবর গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে রয়েছেন। তার গ্রেপ্তারের পর থেকে অনুসারীরা এলাকায় আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে।