মিরসরাইয়ে গণ পিটুনিতে ছিনতাইকারী নিহত

প্রকাশ:| বুধবার, ২১ জুন , ২০১৭ সময় ০৪:৩৭ অপরাহ্ণ

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা :::
চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে গণপিটুনিতে একরামুল হক (৩৫) নামে এক ছিনতাইকারী নিহত হয়েছে। গত মঙ্গলবার (২০ জুন) দিবাগত রাত প্রায় ১০টায় উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়নের উত্তর আমবাড়ীয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার দুই ঘন্টা পর রাত প্রায় ১২টায় মিরসরাই থানা পুলিশ পেছন দিকে হাত বাঁধা এবং অর্ধনগ্ন লাশ উদ্ধার করে।
নিহত একরামুল হক একই ইউনিয়নের মির্জাপাড়া গ্রামের মো. আবু হানিফের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী তাসলিমা আক্তার বাদি হয়ে মিরসরাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা গেছে।
পূর্ব শত্রুতার জেরে একরামুল হককে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে নিহতের বোন আসমা বেগম অভিযোগ করেন, ‘গত কয়েকদিন আগে আমবাড়িয়া গ্রামে মাইনুল ও তার ভাই মাহবুবুল হকের সাথে একরামুল হকের কথা কাটাকাটি হয়। ওই ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বড়তাকিয়া ব্র্যাক অফিসের সামনে থেকে তার ভাইকে তুলে নিয়ে মাইনুল, মাহবুবুল হক, সুমন মেম্বার, মহিউদ্দিন, ইলিয়াছসহ কয়েকজন মিলে হাত পা বেঁধে পিটিয়ে হত্যা করে। হত্যার পর তার ভাইয়ের লাশ উত্তর আমবাড়িয়া সড়কের পাশে একটি খাদে ফেলে দেয়।’ নিহতের স্ত্রী তাসলিমা আক্তার জানান, মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় তার স্বামী বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর রাতে খবর পান উত্তম আমবাড়িয়া এলাকায় তার স্বমাীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
খৈইয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল বলেন, ‘একরামুল হক দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় ছিনতাই, চাঁদাবাজি করে আসছিল। সামনে ঈদকে কেন্দ্র করে সে আরো বেপরোয়া হয়ে যায়। মঙ্গলবার রাতে উত্তর আমবাড়িয়া এলাকায় গেলে স্থানীয় লোকজন তাকে পিটিয়ে আহত করার খবর পেয়ে আমি বিষয়টি পুলিশকে জানাই। পরে ছেলেটি মারা গেছে শুনেছি।’
মিরসরাই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাকির হোসেন জানান, নিহত একরামুল হকের বিরুদ্ধে মিরসরাই থানায় একাধিক ছিনতাইয়ের মামলা রয়েছে। তবে তাকে পিটিয়ে হত্যা করার ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 


আরোও সংবাদ