এসপি’র স্ত্রী হত্যা: আটক যুবক ‘বিভ্রান্তিকর তথ্য’ দিচ্ছে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১০ জুন , ২০১৬ সময় ১১:৫৯ অপরাহ্ণ

আটক যুবক
পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক যুবক পুলিশকে বিভ্রান্তিকর তথ্য দিচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে ওই যুবক পুলিশকে টাঙ্গাইলের যে ঠিকানা দেয়, সেখানে খোঁজ নিয়ে তার সন্ধান পায়নি পুলিশ।

মামলার তদন্ত সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছেন।

সূত্রটি জানায়, ওই যুবকটি রিকশা চালিয়ে মানববন্ধনের আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিল। এ অবস্থায় তার কাছ থেকে দুটি ছোরা, একটি পেনড্রাইভ ও একটি দামি মোবাইল পাওয়া গেছে। তাই তাকে জিজ্ঞাসাবাদে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। সে পুলিশকে একেক সময় একেক তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। ওই যুবক নিজের নাম ইব্রাহিম ও গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল বলে পরিচয় দেওয়ার পর, ওই এলাকায় খোঁজ নিয়ে এসব তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়নি।

এর আগে শুক্রবার বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক থেকে ইব্রাহিম নামের ওই যুবককে আটক করা হয়। ‘সাহসী পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন’ নামে একটি ফেসবুকে একটি ইভেন্ট খুলে শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে প্রেসক্লাবের সামনে জড়ো হয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানান, রিকশা চালিয়ে বেশ কয়েকবার মানববন্ধনের সামনে দিয়ে ঘোরাফরা করছিল ফুল প্যান্ট ও গেঞ্জি পরা ওই যুবক। তার পিঠে ছিল ব্যাগ। গতিবিধি ও আচরণ রহস্যজনক হওয়ায় মানববন্ধনে আসা কয়েকজন তরুণ ওই রিকশাচালককে ধরে ফেলে। এসময় প্রেসক্লাব চত্ত্বরে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরাও এসে পড়ে। এরপর ওই যুবকের ব্যাগ তল্লাশি করে কিছু পাওয়া না গেলেও রিকশার যাত্রী বসার গদির নিচে দুটি ছোরা, একটি পেনড্রাইভ ও একটি দামি মোবাইল পাওয়া যায়। এরপর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে, নিজের বাড়ি টাঙ্গাইল বলে জানালেও অন্যান্য প্রশ্নের উত্তরে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলে।

কোতোয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে।