মামলা প্রত্যাহার, মাদ্রাসা খুলে দেয়ার দাবি জানিয়ে বিবৃতি হেফাজতের

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৮ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

মুফতি ইজহার ও তার ছেলে হারুন ইজহারের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহার করে মাদ্রাসা খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম।
হেফাজতের পক্ষ থেকে পাঠানো বিবৃতিতে লালখানবাজার মাদ্রাসায় বৈদ্যুতিক আইপিএস ও রান্নার চুলা থেকে সৃষ্ট আগুনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করা হয়। বিস্ফোরণের পর গ্রেনেড উদ্ধারের ঘটনাকে সাজানো নাটক বলেও দাবি করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা দুটি মামলা প্রত্যাহার করে জামেয়াতুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদ্রাসা খুলে দেয়ার দাবি করা হয় বিবৃতিতে।

ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করে বিবৃতিতে বলা হয়, লালখানবাজার মাদ্রাসা খুলে দেয়া না হলে কঠোর ও দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে পুরো দেশ অচল করে দেয়া হবে।

বিবৃতিদারাতা হলেন, হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী, হাটহাজারী মাদ্রাসার মুহাদ্দিস ও হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমীর মাওলানা শামসুল আলম, মাওলানা শাহ আহমদুল্লাহ আশরাফ, মাওলানা নুর হোসাইন কাসেমী, মাওলানা আবদুল মোমেন, আশরাফ আলী বিজয়পুরী প্রমুখ রয়েছেন।
নগরীর লালখানবাজার এলাকায় হেফাজত নেতা মুফতি ইজহার পরিচালিত মাদ্রাসায় বিস্ফোরণের ঘটনায় তল্লাশী ও মাদ্রাসা বন্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে হেফাজতে ইসলাম।

মঙ্গলবার বিকেলে হেফাজতের ঘাটি হিসেবে পরিচিত দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা এলাকায় এ বিক্ষোভ করে হেফাজতে ইসলাম হাটহাজারী পৌরসভা শাখা।

বিক্ষোভে হাটহাজারী মাদ্রাসার দুই শতাধিক ছাত্র অংশ নেয়।