মাতৃদুগ্ধের বিকল্প হিসেবে শিশুখাদ্যের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ

প্রকাশ:| সোমবার, ১ জুলাই , ২০১৩ সময় ০৫:৩৩ অপরাহ্ণ

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।Pm1.7-today

এ আইন ভাঙলে কারাদণ্ডের মেয়াদ দুই বছর থেকে বাড়িয়ে তিন বছর করা হয়েছে। আর জরিমানার পরিমাণ ৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫ লাখ টাকা।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞা সাংবাদিকদের জানান, এ আইনের নাম হবে ‘মাতৃদুগ্ধ-বিকল্প শিশুখাদ্য, বাণিজ্যিকভাবে প্রস্তুতকৃত শিশুর বাড়তি খাদ্য ও উহা ব্যবহারের সরঞ্জামাদি (বিপণন নিয়ন্ত্রণ, ইত্যাদি) আইন, ২০১৩।

“এ আইনের আওতায় কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে মাতৃ-দুগ্ধ বিকল্প শিশুখাদ্য উৎপাদন ও বিপণন করা যাবে, তবে বিজ্ঞাপন প্রচার করা যাবে না।”

প্রচার না হলে মাতৃ-দুগ্ধ বিকল্প শিশু খাদ্য কেনা বা ব্যবহারে মা বা পরিবার নিরুৎসাহিত হবে বিবেচনা করেই আইনে এ বিধান রাখা হয়েছে বলে সচিব জানান।

আইনটি পাস হলে নিবন্ধন ছাড়া বিকল্প শিশুখাদ্য উৎপাদন ও বিপণন এবং এ সংক্রান্ত সরঞ্জাম আমদানিও নিষিদ্ধ হবে বলে জানান তিনি।

১৯৮৪ সালের মাতৃদুগ্ধ বিকল্প খাদ্য অধ্যাদেশ (The Breast-Milk Substitutes (Regulation of Marketing). Ordinance, 1984 )  রহিত করে এ আইন করা হচ্ছে জানিয়ে সচিব বলেন, আগে শুধু অপরাধের ক্ষেত্রে ব্যক্তির শাস্তি হতো। নতুন আইনে প্রতিষ্ঠানকেও শাস্তির আওতায় আনা হবে।

কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান প্রথম দফায় শাস্তির পর দ্বিতীয়বারের মতো এ আইন ভাঙলে তার শাস্তি দিগুণ হবে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমেও এ ধরনের অপরাধের বিচার করা যাবে বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান।