মহেশখালী সড়কে থামছে না ডাকাতি

প্রকাশ:| রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ০৮:৩০ অপরাহ্ণ

ডাকাতি ১মহেশখালী প্রতিনিধি: মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়ার যাতায়াত সড়কে ঘন ঘন যানবাহন ডাকাতি কোন মতো থামছেনা। এতে করে বিশাল এলাকাবাসী চরম উদ্ধেগ উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছে। জানা যায়, সড়কের ডেঞ্জারজোন খ্যাত উত্তর নলবিলা -মাতারবাড়ী সংযোগ সড়কে প্রকাশ্যে দিন দুপুরের ফিøম স্টাইলে এবং রাত্রি কালিন সময়ে জঘন্যতম ডাকাতির ঘটনা ঘটে। সম্প্রতি ডাকাতি কবলে পড়া মাতার বাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এনামুল হক রুহুল বলেন, ডাকাতরা সংখ্যায় নগন্য হলেও নানা কারনে তাদের সাথে পেরে উঠছেনা ঐ সড়কের যাতায়াত কারীরা ।

এমনকি স্থান গুলো দূগম পাহাড়ী এলাকা উপজেলার কালারমারছড়া-মাতারবাড়ী ইউনিয়নের সামীন্তবর্তী এলাকা হওয়াতে ইউনিয়নের রশি টানাটানির কারনে দীর্ঘ বছর ধরে দুভোর্গ পোহাচ্ছে উপজেলার হাজার হাজার লোকজন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মহেশখালীতে স্থল পথের যাতায়তের প্রবেশদ্ধার কালারমারছড়া উত্তরনরবিলা-চালিয়াতলী গ্রাম। এছাড়া প্রশাসনিক জনসচেতনার অভাবে দুই ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়াতে অসহায় ভূক্ত ভোগীরা ঘনঘন ডাকাতির শিকারে আক্রান্ত হচ্ছে। নানা সূত্রে মতে, গেল জানুয়ারী মাসে বছরের শুরুতে উল্লেখিত স্থানে ৩১ দিনে ২০ টি চলতি মাসে গত ১৪ দিনে ৪ টির মত ডাকাতির ঘটনা ঘটে দেশ বাসিকে ভাবিয়ে তুলেছে , এবং ডাকাতির আঘাতে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছে শতাধিকের ও বেশি লোকজন। অন্যদিকে নগদ টাকাসহ লুট করে নিয়ে যাওয়ার সম্পদের আনুমানিক মূল্য প্রায় ৫/১০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি হবে।

ভূক্ত ভোগী এবং স্থানিয় মানুষেদের সাথে কথা বলে হলে তারা ডাকাত প্রবল এলাকায় স্থায়ী ভাবে যদি একটি পুলিশ বক্স স্থাপন করে হয় অথবা সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কালারমারছড়া ফাঁড়ি পুলিশ এবং মাতারবাড়ী ফাঁড়ি পুলিশের টহল জোরদার হলে থামবে ডাকাতি । জানা গেছে, নানা সময়ে উপজেলার শাপলাপুর ষাইটমারা ,উওরনরবিলা-মাতারবাড়ী সংযোগ সড়কে বছরের পর বছর ধরে ডাকাতির ঘটনা ঘটলে ও এই নিয়ে প্রশাসনের কোন মাথা ব্যাথা নেই। অন্যদিকে কালারমারছড়া পুলিশ ক্যাম্প এবং মাতারবাড়ী পুলিশ ক্যাম্প থাকলে ও কোন প্রকার এ্যাকসেন না নেওয়ার অভিযোগ তোলেন লোকজন। স্থানিয়রা জানিয়েছেন, পুলিশের স্থায়ি ভাবে চৌকি বসানো না হলে ডাকাতি থামানো যাবে না। কালারমারছড়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান প্রার্থী সেলিম চৌধুরী জানান, এলাকার বেশ কিছু প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় উঠতি প্রজন্মের কিছু যুবক ডাকাতির মত জঘন্যতম ঘটনা ঘটাচ্ছে।

জানা গেছে, কালারমারছড়ার ইউনুছখালী মাইজ পাড়া,উত্তর নলবিলা-চালিয়াতলীর ৩০/ ৩৫ জনের উঠতি বয়সের যুবক নিয়ে গঠন করা উপজেলার ডাকাত সদ্দার উত্তর নলবিলা-চালিয়াতলী এলাকার মৃত আবদু ছত্তারের পুত্র একরাম (ডাকাত), আনোয়ারের পুত্র আবছার, উলামিয়ার পুত্র গিয়াস উদ্দিন এ বাহিনীটি গঠন করে প্রতিদিন স্থান পরিবর্তন করে ডাকাতি সংঘঠিত করে থাকে। তবে স্থানিয় লোকজন নবাগত ওসির দুঃসাহসিক অভিযানের মাধ্যমে ডাকাতদের আটক করতে সক্ষম হবে বলে স্বপ্ন দেখছেন ভিন্নভাবে।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে জানতে চাওয়া হলে মহেশখালী থানার নবাগত ওসি বাবুল চন্দ্র বণিক জানান, আমি নতুন যোগদান করায় এলাকা ভালভাবে চিনিনা, তবে যেখানে ডাকাতি হবে সেখানে খোঁজ খবর নিয়ে ডাকাতদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাবে। তিনি প্রতিবেদককে সেখানে পুলিশ টহল থাকে বলে জানান।


আরোও সংবাদ