মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন কমিটির সভা

প্রকাশ:| রবিবার, ২৯ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:৫৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্রগ্রাম বিজয় দিবস ২০১৫উদ্যাপন কমিটি বন্দর নগরীরর আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন হোটেল ফেভার ইন ইন্টারন্যাশনালের স্কাই ভিউ ব্যাংকুয়েট হলে এক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্রগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম। সভাপতিত্ব করেন বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির মহাসচিব লায়ন এম.শফিউল আলম।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পঙ্কজ বৈদ্য সুজন, চট্রগ্রাম আঞ্চলিক গানের কোকিল কন্ঠী গায়িকা, টিভি ও রেডিও শিল্পী কল্যানী ঘোষ, এ.কে.এম জাহেদ চৌধুরী, অধ্যাপক নুরুল হুদা, মোঃ জাহাঙ্গীর সেলিম, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিঃ আবুল কাসেম, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা রাখাল চন্দ্র ঘোষ, শিল্পী গীতা আচার্য,এ্যাডভোকেট মুসলেহ উদ্দিন চৌধুরী শাহীন, আমিনুল হক বাবু, কায়সার মাহমুদ, চট্রগ্রাম রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি কিরন শর্মা, সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক মোঃ আলমগীর,সদস্য মহিউদ্দিন মোহাম্মদ ইকবাল সহ অন্যান্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
উপস্থিত নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বিজয় দিবস উদযাপন কমিটি গঠন সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদির উপর মূল্যবান আলোচনা করেন । এতে বিজয় দিবস উদযাপন কমিটি ২০১৪ এর মহাসচিব লায়ন এম শফিউল আলম বলেন— ”৩০ লক্ষ শহীদের আত্মাহুতি, ২.৫ লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রম-হানী , ১ কোটি স্বাধীনতাকামী বাঙ্গালীর গৃহহীন হবার মধ্য দিয়ে জাতির মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ইস্পাত-কঠিন নের্তৃত্বে ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী স্বশস্ত্র যুদ্ধের অবসানের পর এই মহান বিজয় দিবস অবশেষে ১৯৭১ সনের ১৬ ডিসেম্বর নিগৃহীত বাঙ্গালীর স্বপ্নের বিজয় ,স্বাধিকার আদায়ের বিজয় দিবস হিসেবে হাতের মুঠোয় ধরা দেয় ”।
অন্যান্যদের মধ্যে চট্রগ্রাম রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি কিরন শর্মা তাঁর বক্তব্যে বলেন, ” তৃতীয় বিশ্বের লেীহ মানব, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, জাতির মহান স্থপতি , বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে ভ’-গোলকে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের মানচিত্র স্থান পেত না । প্রকারান্তরে, পশ্চিমা বেনীয়াদের পরাধীনতা শৃঙ্খলে আবদ্ধ থাকলে আজ আমাদের স্বাধীনতার স্বপক্ষের সকল শক্তিকে রাজাকার, আলবদর,আলশামসের হাতে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলে নির্বিচারে জীবন বলী দিতে হত”। তিনি এই মহান বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির পাশে থেকে অতীতের ন্যায় রিপোর্টাস ইউনিটির পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগীতার আশ্বাস প্রদান করেন ও বাঙ্গালীর বিজয়ের জোয়ারে সকল অশুভ শক্তি খান খান হয়ে যাবে এবং বাস্তবায়িত হবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা। পরিশেষে সভাপতির সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে আলোচনা সভার সমাপ্তি ঘটে।


আরোও সংবাদ