মসজিদ ও ধর্ম প্রতিষ্ঠানে চক্রান্তকারীদের ঠাঁই নেই-মহিউদ্দিন

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট , ২০১৫ সময় ০৮:৩৪ অপরাহ্ণ

চৌধুরী মহিউদ্দিন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর কর্মসূচিতে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা এনে দিয়ে বাঙালি জাতিকে বিশ্বসভায় মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছেন। তাই আমরা কারো কাছে নত হবো না। বাঙালি জাতিকে নস্যাৎ করার জন্য ধর্মান্ধ জঙ্গিবাদী অপশক্তি মসজিদ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ঘাপটি মেরে থেকে নাশকতা চালিয়েছে। এমনকি মসজিদেও হামলা চালিয়েছে, কোরআন শরিফ পুড়িয়েছে। তাদের এই অপতৎপরতা রুখতে মসজিদ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আমাদেরকে প্রতিনিয়ত নামাজ এবাদত ও প্রার্থনা করে সামাজিক উন্নয়ন ও মানব কল্যাণে ব্রত হওয়ার দীক্ষা নিতে হবে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের জন্য এমনই একটি শক্তি যাঁর আদর্শকে ধারণ করে বাংলাদেশকে উন্নয়ন ও অগ্রগতির শিখড়ে পৌঁছে দিতে পারি। তাই মসজিদ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে আমাদেরকে উন্নয়ন ও প্রগতির বাধাগুলো অতিক্রম করতে হবে। মহানগর আওয়ামী লীগ ঘোষিত বঙ্গবন্ধুর ৪০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালনোপলক্ষে মাসব্যাপী কর্মসূচির ৬ষ্ঠ দিনে আজ বিকেলে পূর্ব বাকলিয়াস্থ কামালে ইশকে মুস্তফা (দ:) কমপ্লেক্স জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল পূর্ব বিশাল মুসল্লী সমাবেশে তিনি একথা বলেন। তিনি উন্নয়ন বঞ্চিত বাকলিয়া প্রসঙ্গে বলেন, এই এলাকাটি শহরের মধ্যে থাকলেও এখানে নাগরিক সুবিধা অপ্রতুল। সরকারকে কর দেওয়া সত্ত্বেও এখানকার রাস্তাঘাট, বিদ্যুৎ, গ্যাস সরবরাহ ব্যবস্থা অত্যন্ত দুর্বল। তাই স্থানীয় মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। তাই জনপ্রতিনিধিদের এলাকার সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী হতে হবে এবং সরকার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রাপ্য অধিকার আদায় করে নিতে হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু এমনই একজন ব্যক্তি যিনি রাষ্ট্রনায়ক হওয়া সত্ত্বেও সাধারণ জীবনযাপন করতেন এবং সাধারণ মানুষ তাঁর অন্তরে ঠাই নিয়েছিল। এই মহামানবকে সপরিবারে হত্যা করে যারা বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিতে চেয়েছিল তারা জানত না বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু হতে পারে না। তাই তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বাংলাদেশকে অনেক সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কামালে ইশকে মুস্তফা (দ:) কমপ্লেক্স ট্রাস্টের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এম. কায়কোবাদ, ১৮নং পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুনুর রশিদ, গণ-আজাদী লীগের জেলা আহ্বায়ক মাওলানা নজরুল ইসলাম আশরাফী, সাবেক কাউন্সিলর শহীদুল আলম। মিলাদ মাহফিল ও মোনাজাত পরিচালনা করেন কামালে ইশকে মুস্তফা (দ:) জামে মসজিদের খতিব অধ্যক্ষ মাওলানা তোহা মুহাম্মদ মুদ্দাছির।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- হাজী জহুর আহমদ, নজরুল ইসলাম বাহাদুর, আহমদ ইলিয়াছ, নুরুল আমিন শান্তি, সৈয়দ আমিনুল ইসলাম, মো: ইসহাক, শামসুল আলম, নিজাম উদ্দিন নিঝু, মো: জসিম উদ্দিন, জসিম উদ্দিন, মো: ইসহাক, মো: জসিম উদ্দিন, এম.আর. আজিম, মো: সালাহউদ্দিন, লোকমান হাকিম, হেলাল উদ্দিন, নুরুল আনোয়ার, সরফুদ্দিন চৌধুরী রাজু, শেখ নাছির আহম্মদ, আসহাব রসুল চৌধুরী জাহেদ, আবু বক্কর চৌধুরী, ফজলে প্রিয় বড়–য়া, মান্না বিশ্বাস, আরশেদুল আলম বাচ্চু, ফরহাদুল আলম মিন্টু, আজিজুর রহমান আজিজ, মো: ইলিয়াছ, আবু সাঈদ সুমন, আলী রেজা পিন্টু, মামুনুল হক, সাঈদ রহিম, অমিত কুমার বসু, সাইদুর রহমান, আবু মো: আরিফ, মাঈনুল হোসেন চৌধুরী শিমুল, এস.এম. ফজলে রাব্বি সুজন, ওসমান গণি বাপ্পী, রনি মির্জা, আবুল মনসুর টিটু, কায়সার মাহমুদ রাজু, সাব্বির সাকিব, রবিউল হোসেন সুমন, রাকিব হোসেন প্রমুখ।

আগামীকাল বঙ্গবন্ধুর ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামীকাল ৭ আগষ্ট বাদ আছর জি.ই.সি মোড়স্থ প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদ প্রাঙ্গণে মিলাদ ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।


আরোও সংবাদ