ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুইদিন ব্যাপী বার্ষিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলন সম্পন্ন

প্রকাশ:| রবিবার, ২ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ১০:৫০ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেছেন, বর্তমানে বাংলাদেশ একটি খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ। দেশে উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে। মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে চতুর্থ, সবজি ও আলু উৎপাদনে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে। মৌসুমি ফসল যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে পারলে তা সারা বছর খাদ্যের চাহিদা মেটাতে সহায়তা করবে। মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে উল্লেখ করে মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, শিক্ষা ও গবেষণা বিনিময়ের মাধ্যমে দু’দেশের রাষ্ট্রীয় সম্পর্ক আরও নিবিড় হতে পারে। একই সাথে জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে দু’দেশ লাভবান হতে পারে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪তম বার্ষিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মালয়েশিয়ার সরকারি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া তেরেঙ্গানো (ইউএমটি) এর ইনস্টিটিউট অফ ট্রপিক্যাল এগ্রিকালচার এর ডিরেক্টর প্রফেসর ড. আবুল মুনাফি, স্কুল অফ ফুড সাইন্স এন্ড টেকনোলজি (ইউএমটি) এর ডিন প্রফেসর ড. আমিজা মাত আমিন।

এবারের বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের প্রতিপাদ্য বিষয়: “টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা: খাদ্য নিরাপত্তা ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণে মৎস্য ও পশু সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার (অপযরবারহম ঝউএং ভড়ৎ ইধহমষধফবংয- ওহঃবমৎধঃরহম ষরাবংঃড়পশ ধহফ ভরংযবৎরবং ৎবংড়ঁৎপবং ঃড় বহংঁৎব ভড়ড়ফ ংধভবঃু ধহফ ংবপঁৎরঃু)”। বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে দেশ-বিদেশের ১৪টি বিশ্ববিদ্যালয়সহ গবেষণা প্রতিষ্ঠানের প্রায় তিনশ’ বিজ্ঞানী, গবেষক ও শিক্ষাবিদ অংশগ্রহণ করেন।

দুই দিনের সম্মেলনে মোট ৮টি টেকনিক্যাল সেশনে একটি মূল প্রবন্ধ এবং ৪৫টি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপিত হয়। সম্মেলনে বিষয়সংশ্লিষ্ট ৩৮টি পোস্টার প্রদর্শন করা হয়। ওয়ান হেল্থ ইনিস্টিউটের পরিচালক ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. জুনায়েদ ছিদ্দিকী দুইদিনের সম্মেলনে ৮টি টেকনিক্যাল সেশনে উপস্থাপিত গবেষণা প্রবন্ধ সমুহের সারসংক্ষেপ তুলেন।

ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া তেরেঙ্গানো (ইউএমটি) এর স্কুল অফ ফুড সাইন্স এন্ড টেকনোলজি’র ডিন প্রফেসর ড. আমিজা মাত আমিন বলেন, বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে সুসম্পর্ক বিরাজমান। ফুড সেফ্টি ও ফুড সিকিউরিটি নিয়ে দু’টি দেশের করণীয় অনেক ইস্যু রয়েছে। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমে দু’দেশের সম্পর্ক আরও গভীর হবে। আমরা দু’টি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ কার্যক্রমের মাধ্যমে দু’দেশের রাষ্ট্রীয় সম্পর্ক আরও নিবিড় করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করছি।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন। পোস্টার প্রদর্শনীতে সেরা পোস্টার প্রেজেন্টারকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো হয়।