ভূমিদস্যুদের করাল গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে ‘কালিদাস নদী’

প্রকাশ:| শনিবার, ২৫ জুন , ২০১৬ সময় ১১:০৪ অপরাহ্ণ

কালিদাস নদীমুন্সীগঞ্জ শহর ঘেষা উত্তর ইসলামপুরের কালীদাস নদীর তীরে রাতের আধারে বালু ভরাট করছে স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র। কালের বিবর্তনে ভূমিদস্যুদের করাল গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে এক কালের ঐতিহ্যবাহী নদীটি।

এক সময় দূর-দূরান্তে যাতায়াতের উপযোগী নদী ছিল কালিদাস। বিভিন্ন দখলদারদের কারণে এখন মরা খালে পরিণত হয়েছে এটি। নদীটি উত্তর দিকে হাটলক্ষীগঞ্জ হয়ে ধলেশ্বরী নদীতে মিশেছে। অপরদিকে দক্ষিণ দিকে রমজানবেগ, চরমশুরা গ্রাম হয়ে মেঘনা নদীতে মিশেছে।

সরেজমিনে উত্তর ইসলামপুরের ফরাজীবাড়ির ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় প্রভাবশালী সেন্টু মিয়া রাতের আঁধারে নদীর পাড়ে বাঁশের বেঁড়া দিয়ে বালু ফেলে জায়গা ভরাট করছে। প্রশাসন একাধিকবার বালু ভরাট করতে নিষেধ করলেও প্রভাবশালী চক্র তা আমলে নিচ্ছে না।

এছাড়া নদীটির বিভিন্ন পয়েন্টে দখলদাররা নদীটিকে পুরোপুরিভাবে গ্রাস করার লক্ষ্যে যে যেভাবে পারছে ভরাট করে মালিকানায় নিচ্ছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন এলাকাবাসী বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে শুনে আসছি এটি কালীদাস নদী। এটি ধলেশ্বরী নদীর একটি শাখা নদী। এটি আগে অনেক প্রশস্ত ছিল, এখন আস্তে আস্তে ভরাট হচ্ছে।’

এ ব্যাপারে বালুভরাটকারী সেন্টু মিয়ার সাথে ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, ‘এটি আমাদের পৈতৃক সম্পত্তি তাই বালু দিয়ে ভরাট করতেছি। এখানে আমাদের পৈতৃক জমি ছিল পূর্বে এক সময় নদীতে ভেঙ্গে গিয়ে নদীগর্ভে বিলীন হয়। এখন চর পরেছে তাই আমরা আস্তে আস্তে বালু দিয়ে ভরাট করছি।’

এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসার সাইদুজ্জামান বলেন, ‘আমরা একাধিকবার দখলদারদের বালু ভরাট করতে নিষেধ করেছি। কেউ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বালু ভরাট করছে এমন অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’