ভিডিওর সূত্র ধরে অভিযান, জরিমানা আদায়

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ১৯ মে , ২০১৮ সময় ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

রমজানে দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক রাখতে কয়েকদিন ধরেই জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থেকে শুরু করে স্বয়ং জেলা প্রশাসকও বাজার মনিটরিংয়ের অংশ হিসেবে অভিযানে নামলেও তেমন সুফল পাচ্ছে না নগরবাসী।

কারণ ব্যবসায়ীরা যতক্ষণ অভিযান ততক্ষণ নির্দেশনা মানেন। অভিযানের আগে ও পরে ঠিকই বাড়তি দাম আদায় করছিলেন বিক্রেতারা। এবার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেছেন। অসাধু এসব ব্যবসায়ীদের হাতেনাতে ধরতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম অভিযানের আগে প্রথমে সোর্স পাঠিয়ে ভিডিও করে নিয়ে আসেন।

পরে ভিডিও চিত্রের মা্ধ্যমে ওই সব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযানে নামেন তিনি।

শনিবার (১৯ মে) বেলা ১টায় নগরের আগ্রাবাদ কর্ণফুলী মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে।

তৌহিদুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, ‘একাধিক ক্রেতা অভিযোগ করেছিলেন, নগরের কর্ণফুলী বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলাকালীন সময়ে দোকানের নির্দিষ্ট স্থানে মূল্যতালিকা সংরক্ষণ এবং দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক থাকলেও অভিযানের আগে ও পরে এর ব্যত্যয় ঘটে।

বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে শনিবার দুপুরে কর্ণফুলী মার্কেটে প্রথমে সোর্স পাঠানো হয়। এসময় অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে সোর্সকে দোকানগুলো ভিডিও করে আনতে বলা হয়। পরে ভিডিওর সূত্র ধরে অভিযান পরিচালনা করে আইন ভঙ্গকারী বিক্রেতাদের কাছ থেকে দশটি মামলায় ১৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

নগরের অন্যান্য বাজারেও পর্যায়ক্রমে এরকম অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানান তিনি।

এদিকে, একই দিন নগরের অক্সিজেন বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নওশের ইবনে হালিমের নেতৃত্বে অভিযানে মূল্যতালিকা না রাখা, ওজনে কম দেওয়া এবং মহিষের মাংসকে গরুর মাংস বলে বিক্রি করায় ৯ দোকানিকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।