ভাষা নিয়ে আমাদের অনেক আবেগ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১০ মার্চ , ২০১৭ সময় ০৯:৫৩ অপরাহ্ণ

ভাষা নিয়ে আমাদের অনেক আবেগ, েযুগে যুগে কবি-সাহিত্যিকরা লেখনির মাধ্যমে মানুষকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী করে তুলেছেন। সাহিত্য যেমন মনের খোরাক জোগায়, তেমনি বিপ্লবের খোরাকও জোগায়।

কথাগুলো বলেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার ইকবাল বাহার।  শুক্রবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনিরুদ্ধ মুক্তমঞ্চে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস আয়োজিত আবৃত্তি উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সিএমপি কমিশনার বলেন, এদেশ বাংলা ভাষাভাষিদের দেশ।  পৃথিবীর একমাত্র ভাষার রাষ্ট্র তা-ও বাংলাদেশ।  এই ভাষা নিয়ে আমাদের অনেক আবেগ আছে।

‘যার আবেগ আছে তার বেগ আছে, যার আবেগ আছে তার সাহস আছে। বেগ আর সাহসকে যদি একত্রিত করা যায় তাহলে এগিয়ে যাবার ক্ষেত্রে আর কোন বাধাকেই বাধা মনে হবে না।  আর মনের সেই আবেগ সৃষ্টি করে দেয় সাহিত্যিকরা।  শুধু আবেগ না তারা বিপ্লবও সৃষ্টি করে দেয়। ’

আবৃত্তি শিল্পী ও অভিনেতা জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় বলেন, আমি যখন কয়েক বছর আগে এই তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের অনুষ্ঠানে এসেছিলাম তখন কিন্তু এরকম বিপুল দর্শক স্রোতা ছিল না।  এইবার এসে মনে হচ্ছে, তারণ্যের উচ্ছ্বাস নামক গাছের ডালপালা ও শাখা-প্রশাখা বেড়েছে, ফুল ফুটেছে ও ফলও ধরেছে।  এভাবে এগিয়ে গেলে বাংলাদেশের সাংস্কৃতি আরও বহুদূর এগিয়ে যাবে।

‘কবিতার জন্যে অহোরাত্র যূথবদ্ধ মায়া’ স্লোগান ধারণ করে আয়োজিত উৎসবে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের আহবায়ক ভাগ্যধন বড়ুয়া সভাপতিত্বে করেন।

সদস্য সচিব মো. মুজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন উৎসব উদযাপন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চৌধুরী বাবর এবং চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী।

এসময় কবি নির্মলেন্দু গুণ ও হেলাল হাফিজ,  শহীদ জায়া বেগম মুশতারী শফি, বনফুল গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ মোতালেব, ভারতের মুর্শিদাবাদের অমৃতকুম্ভ সম্পাদক সৌমেন চট্টোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বিকেল তিনটায় তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে শিল্পকলা একাডেমির সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়।  শোভাযাত্রাটি নগরীর গোলপাহাড় মোড় হয়ে শিল্পকলা একাডেমিতে এসে শেষ হয়।

উৎসবের মিডিয়া পার্টনার দৈনিক আজাদী, চ্যানেল টুয়েন্টিফোর, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোরডটকম এবং রেডিও টুডে।