ভারতের আরেকটি লজ্জা অতঃপর ইনিংস ও ৫৪ রানের পরাজয়

প্রকাশ:| শনিবার, ৯ আগস্ট , ২০১৪ সময় ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

ইংল্যান্ডের করা ৩৬৭ রান খুব বেশি কিছু? অন্যতম সেরা ব্যাটিং লাইন-আপ সমৃদ্ধ ভারতের কাছে এ রানটাও মনে হলো পর্বত সমান! এর মধ্যে আবার কিছু সময় বৃষ্টির বাগড়াও ছিল। কিন্তু প্রকৃতির সহায়তাটুকুও কাজে লাগাতে পারল না ভারত। ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টের তিনটি দিনই ধুঁকল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। অতঃপর ইনিংস ও ৫৪ রানের পরাজয়।

লর্ডসে ঐতিহাসিক জয়ের পর সাউদাম্পটন টেস্টে ২৬৬ রানে হারের পর সুনীল গাভাষ্কার বলেছিলেন, ‘হারেরও একটা ধরন থাকে। ভারত যেভাবে হারল, তাতে মানসিকভাবে ইংল্যান্ড এগিয়ে যাবে।’ বাস্তবে ঘটল সেটিই। ২১৫ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছিল ভারত। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংস যেন প্রথম ইনিংসকেই অনুসরণ করল। প্রথম ইনিংসে ৬৩ রানে ৬ উইকেট পড়েছিল, দ্বিতীয় ইনিংসে ৬৬ রানে ৬ উইকেট! দ্বিতীয় ইনিংসেও ধোনি-রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সামান্য প্রতিরোধ গড়ে উঠল। দুজনের সপ্তম উইকেট জুটিতে এল সর্বোচ্চ ৩৯। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৪৬ এল অশ্বিনের ব্যাট থেকে। আট নম্বরে নেমে অশ্বিন যদি সর্বোচ্চ রান করেন, ইংলিশ কন্ডিশনে ভারতের ব্যাটিংয়ের কী ভয়াবহ দুর্দাশা—নিশ্চয় অনুমেয়। প্রথম ইনিংসেও অশ্বিন ছিলেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক (৪০)।

ভারতের আরেকটি লজ্জাতবে ভারতের জন্য বড় ট্র্যাজেডি, প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশ পেসাররা নন, ভুগিয়েছেন এক স্পিনার—মইন আলী। ডানহাতি অফস্পিনার তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট।

আগের দিনের ৬ উইকেটে ২৩৭ রানের সঙ্গে আজ ৩ উইকেটে ১৩০ রান যোগ করে ইংল্যান্ড। এর মধ্যে বরুণ অ্যারনের এক বাউন্সে রক্তাক্ত হয়ে ১২ রানে উইকেট ছাড়েন স্টুয়ার্ট ব্রড। সর্বোচ্চ ৭৭ আসে জো রুটের ব্যাট থেকে। ভারতের বোলারদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি করে উইকেট নেন ভুবেনশ্বর কুমার ও বরুণ অ্যারন।

এ জয়ে ৫ ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। শেষ ম্যাচ ভারত জিতলে হয়তো সিরিজটা বাঁচানো যাবে। কিন্তু ভারত সেটি পারবে কি না সেটাই দেখার। আর যদি শেষ টেস্টেও আত্মসমার্পণ করে ধোনির দল, তাহলে বিদেশের মাটিতে ভারতের ধারাবাহিক নাকাল হওয়ার তালিকায় যোগ হবে আরেকটি সিরিজ! স্টার স্পোর্টস ১ ও ক্রিকইনফো।


আরোও সংবাদ