ভারতকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বহু আরাধ্যের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হাতে উঠল শ্রীলঙ্কার

প্রকাশ:| রবিবার, ৬ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

ভারতকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বহু আরাধ্যের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হাতে উঠল শ্রীলঙ্কারভারতকে ১৩ বল বাকি থাকতে ৬ উইকেটে হারিয়ে বহু আরাধ্যের বিশ্বকাপ হাতে উঠল শ্রীলঙ্কার হাতে, আরও নির্দিষ্ট করে বললে মাহেলা-সাঙ্গার হাতে।
অনেককেই চমকে দিয়ে ১৯৯৬ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। এর পরই এই দুই লঙ্কান কিংবদন্তির অভিষেক। এটি হয়তো ওয়ানডে বিশ্বকাপ নয়, কিন্তু জয়ের আনন্দে এতটুকু কমতি নেই শ্রীলঙ্কার। ১৮ বছরের অপেক্ষা শেষে যে আবার কোনো ‘বিশ্ব’ শিরোপা ঘরে তুলল তারা।
নিজেদের শেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয়ের নেতৃত্বও দিলেন মাহেলা-সাঙ্গা। রায়নার বলে ফেরার আগে জয়াবর্ধনে করেছেন ২৪ আর সাঙ্গাকারা তো দলকে জিতিয়ে তবেই ফিরেছেন। লঙ্কান ক্রিকেটের এ বাঁহাতি মহীরুহ অপরাজিত ছিলেন ৫২ রানে। দুজনই দলের সর্বোচ্চ দুই স্কোরার। এর চেয়ে দারুণ সমাপ্তি কজনার হয়!
ভারতের দেওয়া ১৩১ রানের লক্ষে খেলতে নেমে শুরুতে কুশল পেরেরাকে হারায় শ্রীলঙ্কা। ওই পর্যন্তই। এরপর আর শ্রীলঙ্কাকে তেমন কোনো বিপদে ফেলতে পারেনি ভারতীয় বোলাররা। বেশ স্বাচ্ছন্দ্যেই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে লঙ্কানরা। জয়াবর্ধনে-সাঙ্গাকারার সঙ্গে দিলশানের ১৮, থিসারা পেরেরা অপরাজিত ১৪ বলে ২১ স্বপ্নের সৌধ পূরণে সাহায্য করেছে দারুণভাবে। এ টুর্নামেন্টে ফর্মের তুঙ্গে থাকা ভারতকে ফাইনালে মাটিতে নামিয়ে আনতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সাঙ্গাকারা-পেরেররা অবিচ্ছিন্ন পঞ্চম উইকেট জুটি। এ জুটিতে আসে ৩২ বলে ৫৪।
প্রায় তিন মাস ধরে বাংলাদেশে ঘাঁটি গেড়েছে শ্রীলঙ্কা (বিশ্বকাপ শুরুর আগে কয়েক দিনের জন্য অবশ্য দেশে গিয়েছিলেন মালিঙ্গারা)। এর মধ্যে সব সিরিজই জিতেছে তারা। এসেছে এশিয়া কাপ ট্রফিও। বোঝাই যাচ্ছে এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিততে কতটা মুখিয়ে ছিল তারা। শেষ পর্যন্ত লঙ্কানদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। শ্রীলঙ্কা না জিতলেই অন্যায় হতো। পাঁচটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের তিনবারই যে ফাইনালে উঠেছে তারা। আগের দুবারে স্বপ্ন ধরা না দিলেও অবশেষে চ্যাম্পিয়ন লেখা বোর্ড, আর ট্রফি হাতে ক্যামেরাবন্দী হলো তারাই।


আরোও সংবাদ