ভাইস চেয়ারম্যান পদে থাকার ইচ্ছে নেই-নোমান

প্রকাশ:| বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:০৪ অপরাহ্ণ

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান জানিয়েছেন বর্তমান পদে থাকার ইচ্ছে নেই তাঁর। বুধবার দুপুরে নগরীর কাজির দেউড়ি ভিআইপি ব্যাংক্যুইট হলে এক প্রশ্নের উত্তরে একথা জানান তিনি।

পবিত্র ঈদুল আযহা উলক্ষ্যে নেতা-কর্মী, পেশাজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজনের সম্মানে মেজবানের আয়োজন করে থাকেন আবদুল্লাহ আল নোমান। বিগত ২৫ বছর ধরে এ ধারা অব্যাহত রয়েছে।

নোমানবিএনপির নতুন নেতৃত্ব দলের সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুত ও আন্দোলন সংগ্রামে কতটুকু ভূমিকা করতে পারবে এমন প্রশ্নের উত্তরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, দেশে বর্তমানে যে পরিস্থিতি তাতে ভিন্ন দল ও মতের মানুষ কোন প্রতিবাদ করতে পারছে না। দেশের মানুষের সাংবিধানিক কোন অধিকার নেই।

এই অবস্থায় বিএনপি সংকটময় সময় পার করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি একটি শান্তিপূর্ণ মিছিল কররেও সেখানে বোমা ফাটিয়ে বিরোধী দলকে বিশৃঙ্খল দল হিসেবে প্রমাণ করতে চাইছে। সাংগঠনিক কোন কার্যক্রম করতে দিচ্ছে না।

এ অবস্থায় বিএনপির নতুন কমিটি সারা দেশে সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুত করে সাধারণ মানুষকে নিয়ে আন্দোলন সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়বে বলে আমি মনে করি।

তিন সদস্যের চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন এবং আন্দোলন সংগ্রামে কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারবে এমন প্রশ্নের উত্তরে নোমান বলেন, নতুন নেতৃত্বে যারা এসেছেন, তারা সবাইকে নিয়ে কমিটি গঠন করতে পারবে বলে আমি মনে করি। আর যদি না পারে তখন দলের হাই কমান্ড সিদ্ধান্ত নেবে।

নোমানের আয়োজিত মেজবানে দলীয় নেতা-কর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন উপস্থিত হয়েছেন। দলীয় কোন্দল থাকলেও সব ভেদাভেদ ভুলে উপস্থিত হলেছিলেন ভিন্ন নেতার অনুসারীরাও।

জানা গেছে, বিগত ২৫ বছর ধরে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহার পরদিন দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কুশল মিনিময়ের পাশাপাশি মেজবানের আয়োজন করে আসছেন আবদুল্লাহ আল নোমান। এবার প্রায় ৩০ মণ মাংসে ৮ হাজার মানুষের জন্য খাবারের আয়োজন করা হয়। সকাল ১১টা থেকে বিকেলে ৪টা পর্যন্ত খাবার সরবরাহ করা হয়েছে।

মেজবানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, নগর বিএনপির সভাপতি ডা.শাহাদাত হোসেন, সিনিয়র সহসভাপতি আবু সুফিয়ান, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, শ্রমিক নেতা এএম নাজিম উদ্দিন, উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান, বিএনপি নেতা জাহাঙ্গীর আলম, নগর যুবদল সভাপতি কাজী বেলাল উদ্দিন, নগর মহিলা দলের সভাপতি মনোয়ারা বেগম মনি, নগর ছাত্রদল সভাপতি গাজী সিরাজ উল্লাহ, সহসভাপতি জসিম উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।