ভন্ড ফকির বখতেয়ারের মদদে সন্ত্রাসীদের আস্তানা গড়ে উঠেছে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৬ জুলাই , ২০১৩ সময় ০৫:০৪ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম ,নিউজচিটাগাং২৪.কম।।
রাউজানের পশ্চিম রাউজান ফকির তকিয়া এলাকায় ভন্ড ফকির বখতেয়ারের মদদে সন্ত্রাসীদের আস্তানা গড়ে উঠেছে । p silরাউজান পৌর এলাকার ৯ নং ওযার্ডের পশ্চিম রাউজান ফকির তকিয়া এলাকার বাসিন্দ্বা মৃত কাজী বজল আহামদ্দের পুত্র বখতেয়ার এর নেতৃত্বে সশস্ত্র দলের সদস্যরা গত ১৯৯৪ সালে রাউজানের কেউটিয়ার সেলায়মানের ঘর ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত করে। এই ঘটনার পর বথতেয়ার ও তার সহয়োগীদের কাউখালী উপজেলার মনাইপাড়া পাড়া থেকে পুলিশ অস্ত্র সহ গ্রেফতার করেন । বখতেয়ার ও তার সহযোগীদেও পুণিশ ডাকাতি ও অস্ত্র মামলায় সে সময়ে আদালতে সোর্পদ করলে । আদালতের ম্যজিষ্টেট বখতেয়ার সহযোগীদের জেলে প্রেরণ করেন । দীর্ঘ সময় জেলে থাকার পর বখতেয়ার তার সহযোগীরা জেল থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যায় । র্যাব পুলিশ এর সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে রাউজানের বাঘা বাঘা সন্ত্রাসী গ্রেফতার হলে সন্ত্রাসী বখতেয়ার নিজেকেই ফকির দাবী করে সাদা পাঞ্জাবী ও সাদা লুঙ্গি পড়ে তার বাড়ীতে আস্তানা গড়ে তোলে । সন্ত্রাসী বখতেয়াকে ফকির ও তার কাছে গেলে অসাধ্য সাধন করা যায় বলে তার সহযোগীরা এলাকায় প্রচরণা চালালে রাউজান সহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন শত শত নারী পুরুষ সমস্যা সমাধানের জন্য সন্ত্রাসী বখতেয়ারের আস্তানায় ভীড় করে । সন্ত্রাসীূ বখতেয়ারের অস্তানার প্রবেশ পথে তার নিয়োজিত লোকজন বসে থাকে । বখতেয়ারের আস্তানায় আসা লোকজনের কাছ থেকে প্রবশ পথে বসে থাকা বখতেয়ারের সহয়োগীরা কি কারনে এসেছে জিঞ্জাসা করে তাদের কাছ থেকে নেওয়া সমস্যার কথাগুলো লোকজনের কাছ থেকে দুরে গিয়ে বখতেয়ার কে মোবাইল ফোনে জানানোর পর ভন্ড ফকির বখতেয়ারের আস্তানায় লোকজনকে পাঠানো হয় । ভন্ড ফকির বখতেয়ারের আস্তানায় লোকজন গেলে প্রবেশ পথে বসে থাকা সহযোগীদের মোবাইল ফোন থেকে পাওয়া সমস্যার কথাগুলো ভন্ড বখতেয়ার বলে ফেললে আগত লোকজনের মধ্যে বিশ্বাস সৃষ্টি হয় । আগত লোকজন এর কাছ থেকে ভন্ড বখতেয়ার ঝাড়ফুক, তাবিজ, পানিপড়া দিয়ে প্রতিদিন হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা । ভন্ড ফকির বখতেয়ার লোকজনের কাছ থেকে ভন্ডামীর মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া টাকা দিয়ে এলাকায় সন্ত্রাসীদের লালন পালন করার অভিযোগ করে রাউজান পৌর সভার প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, সন্ত্রাসী বখতেয়ার ভন্ড ফকির সেজে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে গোপনে । ভন্ড বখতেয়ারের আস্তানায় প্রতিদিন রাউজান সহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে দাগী সন্ত্রাসীরা যাতায়াত করে । গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ২ টার সময় প্রতিবেদক ভন্ড ফকির বখতেয়ারের অস্তানায় আরো কয়েক জন সাংবাদিক সহ গেলে, ভন্ড ফকির বখতেয়ারের আস্তানা থেকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের তজু মিয়ার স্ত্রী রহিমা বেগম নামে এক মহিলা বেরিয়ে আসতে দেখা যায় । রহিমার সাথে কথা বললে সে জানায় বাবা হুজুরের কাছে আগে কয়েকবার এসেছি আমার কোন সন্তান না হওয়ায় দোয়া নিতে । কয়েকদপে ৫০ হাজার টাকা বাবা বখতেয়াকে দিয়েছি । ঝাড়ফুকঁ, তাবিজ দোয়া অনেক নিয়েছি সন্তান না হওয়ায় আজ শেষ বারের মতো বাবার কাছে এসে দেখা করলে আরো টাকা দাবী করায় টাকা দিতে সম্মত না হওয়ায় আমাকে আস্তানা থেকে বের করে দিয়েছে । এই প্রতিবেদক ও সাংবাদিকেরা বখতেয়ার ফকিরের সাথে দেখা করার জন্য চেষ্টা করলে রাউজানের আদার মানিক এলাকার নুরুল ইসলাম চড়ইয়্যা বথতেয়ার ফকিরের আস্তানা থেকে বের হয়ে বাবা বখতেয়ার হুজুর বিশ্রামে রয়েছে বলেন । পরবর্তী বখতেয়ার ফকিরের মোবাইল ফোনে একাধিক বার ফোন করে তাহার বিরুদ্বে এলাকার জনপ্রতিনিধি সহ শত শত মানুষের অভিযোগ সর্ম্পকে তার বক্তব্য নেওয়ার চেষ্টা করলে ও মোবাইল ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি । ভন্ড ফকির সন্ত্রাসী বখতেয়ারের আস্তানায় অভিযাণ চালিয়ে সন্ত্রাসী বখতেয়ার ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর জমির উদ্দিন পারভেজ, এলাকার বাসি›ন্দ্বা শ্রমিক নেতা মোঃ ইউনুছ, ছাত্রনেতা ইকবাল, আশিফ জোর দাবী জানান ।