ব্লাক মেইল

প্রকাশ:| রবিবার, ১ জুন , ২০১৪ সময় ০৯:৫৪ অপরাহ্ণ

মোঃ বাবুল আক্তার, বিপিএম, পিপিএম (বার), অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা বিভাগ।।
পুরুষ ও নারীর আপত্তিকর ছবিচট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশকয়েকদিন আগে এক সন্ধ্যায় পরিচিত এক ভদ্রলোক এসে অস্থির হয়ে বললেন “আমার ভাইকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে, এখন টাকা চাচ্ছে”। জানতে চাইলাম, “আপনার ভাই কী করে”? বলল, ব্যবসা করে, আমার ভাইটা খুব ভালো। কেউ কথা না বললে মাথা উচু করে না। জিজ্ঞেস করলাম “কত টাকা”। বলল “পাঁচ লাখ টাকা চেয়েছিল, তিন লাখ টাকা দিতে রাজি হয়েছি”। তথ্য জোগাড় করে মোবাইল লোকেশন নিয়ে আমাদের টিম অভিযান চালিয়ে অপরাধীদের কয়েকজনকে আটক করে এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করে। জানা গেল, কয়েকদিন আগে থেকে একটি মেয়ে লোকটির সাথে ফোনে কথা বলে। কিছু দিন কথা বলার পর লোকটি দেখা করতে যায় মেয়েটির সাথে। দেখা করতে গেলে পার্শ্ববর্তী একটা পার্কে যাওয়ার কথা বলে লোকটির সাথে রিক্সায় উঠে মেয়েটি। কিছু দুর যাওয়ার পর কয়েকটি ছেলে রিক্সার গতিরোধ করে তাদেরকে পার্শ্ববর্তী একটা বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে মেয়েটির সাথে আপত্তিকর ছবি তোলে এবং টাকা দাবি করে। অন্যথায় ছবিগুলো প্রকাশ করে দিবে বলে ভয় দেখায়। তখন লোকটি অপহৃত হয়েছে বলে পরিবারের সদস্য ও বন্ধুদের কাছে ফোন করে এবং টাকা দিতে বলে। মেয়েটি ও ছেলেগুলো একই চক্রের সদস্য।

একটা চক্র বিভিন্ন পেশার মানুষকে টার্গেট করে ফোন নম্বর জোগাড় করে এভাবে ব্ল্যাকমেইল করে। মান সম্মানের ভয়ে অনেকে বিষয়টি প্রকাশ করতে কিংবা মামলা করতে চান না।

সচেতন হোন, নিরাপদ থাকুন।

সূত্র-সিএমপি ফেইসবুক পেইজ