ব্রিটেন ৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে একই অবস্থানে আছে

প্রকাশ:| শনিবার, ২৬ জুলাই , ২০১৪ সময় ০৬:১৯ অপরাহ্ণ

ব্রিটেন ৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে একই অবস্থানে আছে বলে জানিয়েছে শমসের মবিন।ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে বাংলাদেশ সরকার মিথ্যাচার করেছে বলে দাবি করেছে বিএনপি। দলটি বলেছে, এর আগে জাতিসংঘের মহাসচিবের বক্তব্য নিয়েও মিথ্যাচার করা হয়েছে। বিদেশি রাষ্ট্র ও সংগঠনের বক্তব্য নিয়ে এ ধরনের মিথ্যাচার সরকারের মধ্যকার অস্থিরতার বহিঃপ্রকাশ। গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের অবস্থান তুলে ধরে এমন মন্তব্য করেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী। সম্প্রতি গার্ল সামিটে যোগ দিতে যুক্তরাজ্য যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের সঙ্গে তিনি বৈঠক করেন। ওই বৈঠকের বিষয়ে ঢাকায় সাংবাদিকদের ব্রিফ করেছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন নাকি বলেছেন, ৫ই জানুয়ারির নির্বাচন অতীত হয়ে গেছে। এর পর সারাদেশে একটি প্রশ্ন তৈরি হয়। কিন্তু পরদিনই সরকারের মিথ্যাচার প্রমাণ হয়ে যায়। প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাজ্য সফর নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতারা মিথ্যাচার করছেন। শমসের মবিন বলেন, সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য যে অবস্থানে ছিল সে অবস্থান থেকে একচুলও নড়েনি যুক্তরাজ্য। যুক্তরাজ্য একটি প্রেসনোট বের করেছে এটার কোথাও লেখা ছিল না, ৫ই জানুয়ারির নির্বাচন যুক্তরাজ্য মেনে নিয়েছে। ৫ই জানুয়ারির নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন আগের অবস্থানে রয়েছে। এই বৈঠক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে এ ধরনের কোন বক্তব্য নেই। বরং ৫ই জানুয়ারির নির্বাচন নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আসলে আওয়ামী লীগ নেতারা মিথ্যা দিয়ে সত্যকে ঢাকার চেষ্টা করছেন। সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনির মতো বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীও মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছেন। শমসের মবিন বলেন, বন্ধুপ্রতীম দেশের ক্ষেত্রে এভাবে মিথ্যাচার করলে কূটনৈতিক সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এটি শিষ্টাচার-বহির্ভূত। এ ধরনের মিথ্যাচারের ফলে আন্তর্জাতিক সম্পর্কে টানাপোড়েন সৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের এই মিথ্যাচার নতুন নয়। এর আগে জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে প্রেসিডেন্টের বৈঠকের পরও এই ধরনের মিথ্যাচার করা হয়েছে। পরে জাতিসংঘ থেকে পাল্টা বিবৃতি দেয়া হয়। শমসের মবিন বলেন, ভোটারবিহীন নির্বাচনে ক্ষমতায় এসে সরকার এখন অস্থিরতায় ভুগছে। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের বৈঠক নিয়ে আওয়ামী লীগ মিথ্যাচার করছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক নিয়ে বিএনপি প্রপাগান্ডা চালাচ্ছে সরকারি দলের এমন বক্তব্য্যের বিষয়ে জানতে চাইলে শমসের বলেন, প্রপাগান্ডা নয়। ৫ই জানুয়ারি নির্বাচন অতীত হয়ে গেছে বিবৃতিতে কোথাও এই কথা উল্লেখ নেই। বিএনপির এ ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, বিএনপি সব সময় সকল দলের অংশগ্রহণে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য আলোচনার মাধ্যমে সমাধান চায়। কাজেই সংলাপ আলোচনা উপেক্ষা করা স্বৈরাচারী শাসকের লক্ষণ। সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিক শফিক রেহমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইনাম আহমেদ চৌধুরী, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, বিএনপি আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক গিয়াসউদ্দিন কাদের চৌধুরী, ড. আসাদুজ্জামান রিপন উপস্থিত ছিলেন।