ব্যাংকের টাকা আত্মসাৎ: কর্মকর্তা কারাগারে

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩০ আগস্ট , ২০১৮ সময় ০৭:২৯ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামে সোয়া দুই কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় কমার্স ব্যাংক খাতুনগঞ্জ শাখার এক্সিকিউটিভ অফিসার মঈন উদ্দিন আহমেদ (৪১) কে ( বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত আছেন) কারাগারে পাঠিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

৩০ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধা এই আদেশ দিয়েছেন।

দুদকের আইনজীবী মুজিবুল হক চৌধুরী বলেন, শুনানিতে আমরা জামিনের জামিনের বিরোধিতা করি। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া মামলার আসামি কমার্স ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখার এক্সিকিউটিভ অফিসার মঈন উদ্দিন আহমেদ (৪১) বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত আছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২ কোটি ১৯ লাখ ১৫ হাজার ৫২৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গত ২৩ জুলাই নগরীর কোতোয়ালী থানায় কমার্স ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখার এক্সিকিউটিভ অফিসার মঈন উদ্দিন আহমেদ (৪১) এবং অফিসার (ক্যাশ) মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। দুদক প্রধান কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. ফানাফিল্যা দ-বিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৬৮, ৪৭৭(এ) এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। দুই আসামিকে ব্যাংক থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, কমার্স ব্যাংকের চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ শাখার ৩৯ জন গ্রাহকের এক হিসাব থেকে অন্য হিসাবে অর্থ স্থানান্তরের মাধ্যমে আসামি মঈন উদ্দিন আহমেদ ও মনিরুল ইসলাম গ্রাহকের ২ কোটি ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৫২৩ টাকা আত্মসাত করেছেন। যদিও পরে ব্যাংক বাধ্য হয়ে গ্রাহকদের ওই অর্থ পরিশোধ করেছে। এছাড়া, আসামিরা পেমেন্ট অর্ডারের বিপরীতে পাঁচ লাখ টাকা আত্মসাত করেছেন।

অর্থাৎ অভিযুক্ত ব্যাংক কর্মকর্তারা মোট ২ কোটি ১৯ লাখ ১৫ হাজার ৫২৩ টাকা আত্মসাত করেছেন। দুদকের অনুসন্ধানে যা প্রমাণিত হয়েছে। অনুসন্ধান কর্মকর্তাদের প্রতিবেদন কমিশনে জমা পড়লে কমিশন প্রাপ্ত রেকর্ডপত্র পর্যালোচনা করে মামলা করার অনুমোদন দেন।

এ মামলায় আরেক অভিযুক্ত কমার্স ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখার অফিসার (ক্যাশ) মনিরুল ইসলাম ২৯ আগস্ট চট্টগ্রামের মুখ্য মহানগর হাকিম ওসমান গণির আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।


আরোও সংবাদ