বোয়ালখালীতে ৪২ বছর বয়সীর লালসার শিকার ১১ বছরের ছাত্রী

প্রকাশ:| সোমবার, ৪ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

dorsonজেলার বোয়ালখালী উপজেলায় ৪র্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে ৪২ বছরের নিধু নামের এক পাষন্ড। গত ২৬ মার্চ উপজেলার আমুচিয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটলেও রোববার মেয়েটির ফরেনসিক মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। এর আগে শনিবার ধর্ষিতা শিশু (১১) পিতা বাদী হয়ে বোয়ালখালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা আল আমিন সরওয়ার জানান, ওই ছাত্রী চট্টগ্রাম জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ৩ এ জবানবন্দি প্রদান করেছে। আমরা আসামীকে গ্রেফতারে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি।

ধর্ষিতা ছাত্রী আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে জানায়, ঘটনারদিন দুপুরে একটি মহোৎসবে বান্ধবিদের সাথে ঘুরতে যায়। এরপর সহপাঠি জয়ার সাথে লুডু খেলতে নিধুদের বাড়িতে যায়। নিধু’র মেয়েও ধর্ষিতা ছাত্রীর বান্ধবী। খেলার এক পর্যায়ে জয়াকে তার মা ডেকে নিয়ে গেলে ৪র্থ শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে ঘরে নিয়ে গিয়ে মুখ চেপে ধরে শারীরিক সর্ম্পক গড়ে। এরপর ১০টাকার একটি নোট ধরিয়ে দিয়ে বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য ভয় দেখায়।

মামলার অভিযোগে ছাত্রীর বাবা জানান, আমার শিশু কন্যাকে গত ২৬ মার্চ দুপুরে পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দা মৃত সাধন চন্দ্র দে’র ছেলে নিধু দে (৪২) বাড়িতে ডেকে নিয়ে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য নিধু দে ১০টাকার একটি নোট ধর্ষিতার হাতে ধরিয়ে দেয়।

স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, ঘটনার কয়েকদিন পর বিষয়টি ওই ছাত্রী তার বোন ও মাকে জানালে তারা স্থানীয় ভাবে বিচার চাইলে নিধু মীমাংসার চেষ্টা চালায়। পরে ঘটনার ৮দিন পর বোয়ালখালী থানায় মামলা দায়ের করেন। ধর্ষিতা উপজেলার কানুনগোপাড়ার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ ছাত্রী।


আরোও সংবাদ