বোয়ালখালীতে ভাবী কর্তৃক দেবরকে প্রাণনাশের হুমকি

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৯ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ০৭:৪৩ অপরাহ্ণ

বোয়ালখালী প্রতিনিধি: বোয়ালখালীতে এক ভাবী কর্তৃক আপন দেবরকে প্রাণে মারার হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার পূর্ব খিতাপচর শফিউর রহমানের নতুন বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বোয়ালখালী থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব খিতাপচর শফিউর রহমানের নতুন বাড়ির মৃত শফিউর রহমানের ছোট ছেলে মোহাম্মদ সৈয়দ বশর কে প্রাণে মারার ভয়ভীতি এবং হুমকি প্রদর্শন করে তারই বড় ভাই আবুল বশরের স্ত্রী রোকেয়া আক্তার সুলতানা (৪০)।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায়, গত ৭ অক্টোবর রাত ১২ টার দিকে রোকেয়া আক্তার সুলতানার নেতৃত্বে পটিয়া নাইখাইন এলাকার তালেব মুন্সির বাড়ীর মৃত নুরুল আবছারের ছেলে শফিউল আজম এবং উপজেলার পশ্চিম গোমদ-ী জমাদার হাট এলাকার আব্দুল হকের ছেলে কাজী কামাল উদ্দিনসহ একদল দুর্বৃত্ত মিলে খরিদা সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধের জেরধরে আমাদের বসতঘরে হামলা চালায়। আমরা তাদের প্রতিরোধে চেষ্টা করে বোয়ালখালী থানা পুলিশে খবর দেই। থানা পুলিশ আসার পূর্বে তারা পালিয়ে যায় এবং যাওয়ার সময় আমাদের পরিবারের সবাইকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এঘটনায় ৩ জনের নাম উল্লেখ সহ ৭/৮জনকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারি মোহাম্মদ সৈয়দ বশর আরো জানান, আমার ভাবী আমার বড় ভাইয়ের বউ হলে সে আমাদের বাড়িতে থাকে না। আমার বড় ভাই জীবন-জীবিকার তাগিদে প্রবাসে থাকে। বড় ভাই প্রবাসে থাকার সুবাধে আমার ভাবী বিভিন্নস্থানে ভাড়া বাসায় থেকে পরপুরুষের সাথে রাত কাটায়। তার এ অপকর্মে আমরা বাধা দিলে তিনি আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে এ হামলা চালায় এবং আমিসহ আমার পরিবার-পরিজনকে হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ নুর মোহাম্মদ বসতঘরে হামলার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাদের পারিবারিক বিষয়ে একাধিকবার আমার ইউনিয়ন পরিষদে বিচার-শালিস হয়েছে। কিন্তু মহিলাটি এ বিচার-শালিস মানতে নারাজ।

বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামছুল ইসলাম জানান, বসতঘরে হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। তবে দুর্বৃত্তরা এর আগেই পালিয়ে যায়। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।