বোয়ালখালীতে এসএসসিতে পাশের হার ৮৩.৫২ ও দাখিলে ৭৪.৮১

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৪ মে , ২০১৭ সময় ০৯:১৭ অপরাহ্ণ

জিপিএ-৫ এ এগিয়ে কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়

বোয়ালখালী প্রতিনিধি: বোয়ালখালী উপজেলার ৩০টি মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ২হাজার ৯শত ৩৭জন পরীক্ষার্থী এবারের এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয়েছে ২হাজার ৪শত ৫৩জন। পাশের হার ৮৩.৫২। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬জন পরীক্ষার্থী। তবে ৮টি বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা জিপিএ-৫ পাইনি। অকৃতকার্য হয়েছে ৪৮৪জন পরীক্ষার্থী।
শতভাগ পাশ করেছে সারোয়াতলী পিসি সেন উচ্চ বিদ্যালয় ও কানুনগোপাড়া ড. বি বি উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা। এছাড়া কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১১জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়ে এগিয়ে রয়েছে।
দাখিলে উপজেলার ১৪টি মাদ্রাসার ৩৯৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয়েছে ২৯৭জন। পাশের হার ৭৪.৮১। জিপিএ-৫ পেয়েছে একজন।
এছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডেও অধীনে বোয়ালখালীতে ভোকেশনালে ১২৪জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১১৩ জন উত্তীর্ন হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন বলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা সূত্র নিশ্চিত করেছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইউনুছ জানান, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে বোয়ালখালীতে এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল ভাল হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১২৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১১৮জন উর্ত্তীন হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১জন। পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩২০জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ২৪২জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩জন। সারোয়াতলী পিসি সেন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯১জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৯১জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন। কানুনগোপাড়া ড. বি বি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৮জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৪৮জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫জন। গোমদন্ডী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ২২২জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৯৬জন উর্ত্তীন হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬জন। শ্রীপুর খরণদ্বীপ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৮জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪৩ জন উর্ত্তীন হয়েছে। মুক্তাকেশী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬০জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৫৮জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন। জ্যৈষ্ঠপুরা রমনী মোহন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯৯জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৯৫জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। চরণদ্বীপ ইউ সি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৬৭জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১১৭জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন। আকুবদন্ডী ওয়ারেছ মোহছেনা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২২জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১৫জন। ইকবাল পার্ক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪২জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৩০জন। বেঙ্গুরা খান বাহাদুর খলিলুর রহমান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০৯জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১০১ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। হাজী জানে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০৮জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১০৬জন। শাকপুরা আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয় ১৬৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১৩০জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। শাকপুরা পাইলট প্রবর্ত্তক কন্যা বিদ্যাপীঠের ৮৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৭৮জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১জন। উত্তর গোমদন্ডী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৬জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৪৭জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। কধুরখীল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৫জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ২৮জন। পশ্চিম কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৩২জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১১৯জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩জন। পূর্ব কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৪৭জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। কধুরখীল ইউনাইটেড মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের ১২০জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৯৭জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। শ্রী অরবিন্দু উচ্চ বালিকা বিদ্যাপীঠের ২৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ২০জন। চরণদ্বীপ দেওয়ান বিবি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৬১জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১১৭জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন। সারোয়াতলী ইব্রাহীম নূর মোহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৮জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৪৬জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। হাজী আজগর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৭৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১৫৫জন। খরণদ্বীপ বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১১৪জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৭০জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। এফ আর নুরুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৪জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ১৮জন। উত্তর ভূর্ষি অন্নদা জীবন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৫১জন। হাওলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৪জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৭২জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। সৈয়দপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৬জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৬০জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১জন। পূর্ব গোমদন্ডী আলহাজ্ব বুদরুচ মেহের উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৫জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উর্ত্তীন হয়েছে ৩৮জন।