বেরুলিয়া খাল ভরাট করে গড়ে তোলছে অবৈধ স্থাপনা

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ২৮ এপ্রিল , ২০১৮ সময় ০৯:৪৯ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান ঃ রাউজান পৌর সভার ৫ নং ওয়ার্ডের সুলতান পুর বেরুলিয়া জজ বাড়ীর সামনে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী ইসমাইল বেরুলিয়া খাল ভরাট করে পাকা ভবন নির্মান করে । রাউজানের সুলতানপুর বেরুলিয়া এলাকার আবুল কাসেম সাব জজের বাড়ীর সামনে জগৎ ধর সড়ক ও বড়বাড়ী পাড়া সড়কের পার্শ্বে খাল দখল করে পাকা ভবন নির্মান করা হলে ও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ নিরবতা পালন করে আসছে । রাউজানের হিংগলা ও সুড়ঙ্গা, ছত্র পাড়া, সুলতানপুর, বড়বাড়ী পাড়া, বেরুলিয়া, ছিটিয়া পাড়া, ছাদেকের পুল, লেলেঙ্গারা হয়ে বেরুলিয়া খাল টি কাগতিয়া খালের সাখে মিলিত হয়েছে । বেরুলিয়া খালটি এক সময়ে প্রশস্ত ছিল । বেরুলিয়া খালটি ভরাট করে বাড়ী ঘর নির্মান, পাকা ঘর নির্মান করায় বর্ষার মৌসুমে পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানি খাল দিয়ে প্রবাহিত হতে প্রতিবন্দ্বকতার সৃষ্টি হয়ে ও বুষ্টির পানিতে ছত্র পাড়া, বড়বাড়ী পাড়া, কেইকদাইর, ছিটিয়া পাড়া এলাকার মানুষের বাড়ী ঘর, ফসলী জমি, জনগনের চলাচলের সড়ক পানিতে ডুবে গিয়ে এলাকার মানুষকে চরম দুভোর্গ পোহাতে হয় । বর্ষার মৌসুমে বেরলিয়া খাল দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে বাধাগ্রস্থ হয়ে চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটি সড়কের বেরুলিয়া, পাইপের গোড়া, আবছার কোম্পানীর ঘাটা পানিতে ডুবে গিয়ে যানবাহন চলাচল বন্দ্ব হয়ে যায় । বেরুলিয়া খাল ভরাট করে পাকা ঘর বাড়ী, ব্যবসা প্রতিষ্টান নির্মান করায় শুস্ক মৌসুমে খাল দিয়ে উজান থেকে পানি প্রবাহিত না হওয়ায় এলাকার কৃষকেরা সেচ সংকটের কারনে বোরো ধানের চাষাবাদ ও রবি শষ্যের চাষাবাদ করতে পারছেনা । রাউজানের সুলতান পুর ছিটিয়া পাড়া এলাকার বাসিন্দ্বা নুরুল আলম বলেন, বেরুলিয়া খাল দিয়ে এক সময়ে জোয়ার ভাটার পানি আসা যাওয়া করতো । বেরুলিয়া খাল দিয়ে নৌকা সাম্পান চলাচল করতো । এলাকার ব্যবসায়ী চট্টগ্রাম শহর থেকে নৌকা সাম্পানে করে মালামাল পরিবহন করতো । বেরুলিয়া খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় এখন জোয়ার ভাটার পানি চলাচল করেনা । রাউজানের বেরুলিয়া থেকে ছিটিয়া পাড়া পর্যন্ত বেরুলিয়া খালের জায়গা দখল করে অর্ধশতাধিক স্থাপনা গড়ে তেলা হয়েছে । রাউজান সুলতানপুর বেরুলিয়া এলাকার আবুল কাসেম সাব জজ বাড়ীর সামনে জগৎ ধর সড়ক ও বড়বাড়ী সড়কের পার্শ্বে বেরুলিয়া খালের জায়গা দখল করে প্রবাসী ইসমাইল সহ কিছু ব্যক্তি পাকা ঘর নির্মান করে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে । বেরুলিয়া খালের মধ্যে পাইপ দিয়ে শৌচাগারের মল ও ময়লা আর্বজনা ফেলানোর ফলে বেরুলিয়া খালের পানি দুষিত হচ্ছে । খালটি ও ভরাট হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বেরুলিয়া এলাকার বাসিন্দ্বা আলমগীর । রাউজান সুলতানপুর বেরুলিয়া এলাকার আবুল কাসেম সাব জজ বাড়ীর সামনে জগৎ ধর সড়ক ও বড়বাড়ী সড়কের পার্শ্বে বেরুলিয়া খালের জায়গা দখল করে প্রবাসী ইসমাইল সহ কিছু ব্যক্তি পাকা ঘর নির্মান করা প্রসঙ্গে রাউজান পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জানে আলম জনি বলেন, পাকাঘর নির্মানের জন্য রাউজান পৌরসভা থেকে অনুমতি নিয়েছে ইসমাইল ও তার ভাইয়েরা তাদের মালিকানাধীন জায়গায় । খালে পাকা ঘর নির্মান করার অনুমতি দেয়নি রাউজান পৌরসভা । রাউজান সুলতানপুর বেরুলিয়া এলাকার আবুল কাসেম সাব জজ বাড়ীর সামনে জগৎ ধর সড়ক ও বড়বাড়ী সড়কের পার্শ্বে প্রবাসী ইসমাইল সহ কিছু ব্যক্তি পাকা ঘর নির্মান করার সময়ে বেরুলিয়া খালের জায়গা দখল করে পাকা ঘর নির্মান করেছে । এলাকার বাসিন্দ্বারা বেরুলিয়া খালের জায়গায় গড়ে তোলা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে এলাকার মানুষকে বর্ষার মৌসুমে জলবদ্বতার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ।


আরোও সংবাদ