বেগম রাজিয়া ফয়েজের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম রাজিয়া ফয়েজের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া।রাজিয়া ফয়েজ

শুক্রবার বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)।

দলের দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদের স্বাক্ষর করা শোক বার্তায় বেগম খালেদা জিয়া বলেন, ‘মরহুমা রাজিয়া ফয়েজ একজন বিজ্ঞ ও আপদমস্তক রাজনীতিবিদ। রাজনীতিবিদ হিসেবে বিভিন্ন সময় নানা ঘাত-প্রতিঘাত অতিক্রম করে নিজেকে জাতীয় অঙ্গনে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। রাষ্ট্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে অত্যন্ত সুনাম ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। বাবার ন্যায় তিনি একজন সুবক্তা হিসেবে সর্বমহলে সমাদৃত ছিলেন। তার জীবনকালে অনেকবার আইন প্রণেতা হয়ে দেশবাসীর কাছে একজন দক্ষ পার্লামেন্টারিয়ানের মর্যাদা লাভ করেছিলেন।’

‘বেগম রাজিয়া ফয়েজ এর মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাহত ও মর্মাহত’ উল্লেখ করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘বহুদলীয় গণতন্ত্রের নিশ্চয়তা, দেশের স্বকীয়তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার অবিচল অঙ্গীকার ছিল মরহুমা রাজিয়া ফয়েজের রাজনীতির মূল প্রতিপাদ্য। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নীতি ও আদর্শের উপর গভীর আস্থাশীল হয়ে মরহুমা রাজিয়া ফয়েজ বিএনপিকে শক্তিশালী করতে যে অগ্রণী ভূমিকা রেখে গেছেন তা চিরদিন দলের নেতাকর্মীরা স্মরণ রাখবে। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি একজন অভিজ্ঞ, সজ্জন, ও নিবেদিতপ্রাণ রাজনীতিবিদকে হারালো যার শুন্যস্থান সহজে পূরণ হওয়ার নয়।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের ভাইস চেয়ারম্যান বেগম রাজিয়া ফয়েজের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের সদস্য, আত্মীয়স্বজন, গুনগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

রাজিয়া ফয়েজের মৃত্যুতে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। মির্জা ফখরুল ইলাম আলমগীর সন্ধ্যায় রাজিয়া ফয়েজের গুলশানের বাসায় যান। সেখানে শোকাহত পরিবারের সদস্যদের শান্তনা দেন।


আরোও সংবাদ