বেগম জিয়ার সুচিকিৎসাসহ মুক্তি গণআন্দোলনে আদায় করার আহ্বান

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০৭:২৫ অপরাহ্ণ

চাকসু ভিপি ও উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ নাজিম উদ্দিন বলেন, দেশ গভীর সংকটে। বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকার দেশকে ২০০৯ সাল থেকে গণতন্ত্রহীন করে রেখেছে। গত ১০ দেশের জনগণ তাদের বাক- স্বাধীনতা, মিছিল-সমাবেশ করার স্বাধীনতা হারিয়েছে। এই সরকার প্রশাসন যন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার পরিকল্পনায় এগুচ্ছে। ভোটার বিহীন আবারো একটি পাঁতানো নির্বাচনের জন্য নীল নক্শা প্রণয়ন করা হয়েছে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারারুদ্ধ করে এবং তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করার জন্য যে ষড়যন্ত্রমূলক ব্যবস্থা নিয়ে বর্তমান অবৈধ সরকার নিয়েছে তা প্রতিহত করার জন্য দেশপ্রেমিক সকল জনগণকে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে আন্দোলনের প্রস্তুতি গ্রহণ অধিকতর জরুরী। বর্তমান সরকারের সকল অনিয়ম, দুর্নীতি, দুঃশাসন, জনগণের কাছে তুলে ধরার জন্য তৃণমূলের সকল নেতৃবৃন্দকে একযোগে কাজ করতে হবে। বেগম জিয়ার সুচিকিৎসার ব্যবস্থাসহ মুক্তি গণআন্দোলনের মাধ্যমে আদায় করার আহ্বান। তিনি আজ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল চট্টগ্রাম উত্তর জেলার উদ্যোগে সকাল ৯ টায় ৩০ মিনিট থেকে বেলা ১২ ঘটিকা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত বিএনপির চেয়ারপার্সন, দেশমাতা সাবেক প্রধানমন্ত্রী, গণতন্ত্রের অতন্ত্রপ্রহরী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসাসহ নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় ঘোষিত প্রতীকি অনশন কর্মসূচিতে সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ কথা বলেন। এতে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ হালিম, অধ্যাপক ইউনুচ চৌধুরী, ইসহাক কাদের চৌধুরী। জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এড. আবু তাহের’র পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নুরুল আমিন, আলহাজ্ব আজম খান, আলহাজ্ব সেকান্দর চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল চৌধুরী, ডা. খুরশিদ জামিল, অধ্যাপক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, মোঃ সেলিম চেয়ারম্যান, মোঃ নুরুল আমিন চেয়ারম্যান, কুতুব উদ্দিন খান, তোফাজ্জল আহমেদ, কাজী মোঃ সালাহ উদ্দিন, জয়নাল আবেদীন দুলাল, মোঃ সালাহউদ্দিন চেয়ারম্যান, সোলায়মান মঞ্জু, অধ্যাপক কুতুব উদ্দিন বাহার, মোঃ জাকের হোসেন, মোঃ মাহবুব ছাফা, মোঃ আবু ছিদ্দিক, মোঃ মোরসালিন, অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম লতিফী, ফজল বারেক, মোঃ আইয়ুব খান, এড. রেজাউর নুর সিদ্দিকী উজ্জ্বল, সৈয়দ মোস্তফা আলম মাসুম, নবাব মিয়া চেয়ারম্যান, মোঃ ফজলুল হক, মোঃ আলমগীর, মোঃ মোর্শেদ আলী, মোঃ নাসির উদ্দিন, মোঃ বদিউল আলম বদরু, মোঃ ফোরকান উদ্দিন রিজভী, মোঃ গিয়াস উদ্দিন, নার্গিস আক্তার, জান্নাতুল ফেরদৌস, নুরী মাহফুজা ইউসুফ, জোবাইদা শিরীন আক্তার, আনোয়ারা বেগম, মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, এস.এম আজিজ উল্লাহ, আনিছ আকতার টিটু, মোঃ ওসমান গণি, মোঃ জাহেদুল আলম, মোহাম্মদ আলী, মোঃ নাসির উদ্দিন খোকন, মোঃ আইয়ুব খান, নাজিম উদ্দিন খান, মোঃ জাহাঙ্গীর এলাহী, আবুল মনসুর, ইকবাল হোসেন টিটু, মোঃ মোজাম্মেল হক, জুয়েল খান, হুজ্জাতুল ইসলাম, মোঃ সালাহ উদ্দিন, সহ চট্টগ্রাম উত্তর জেলার বিএনপির আওতাধীন উপজেলা, পৌরসভা, বিএনপির ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
প্রতীকি অনশনে উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি এম এ হালিম বক্তব্যে বলেন, শহীদ জিয়ার আদর্শের সংগঠন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের জনগণের কল্যাণে আপোষহীনভাবে ধরে রেখেছেন। যার জন্য স্বার্থন্বেষীমহল দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে নিঃশেষ করে দেওয়ার জন্য বিনা অপরাধে কারাগারে রেখেছে। জনগণের আন্দোলনের মুখেই দেশনেত্রীকে মুক্তকরা ছাড়া কোন বিকল্প নেই। জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি অধ্যাপক ইউনুচ চৌধুরী বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তি ব্যতিত দেশ গণতন্ত্রে ফিরে আসবে না। জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ইসহাক কাদের চৌধুরী বলেন, দেশ এবং জনগণকে রক্ষার জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য গণআন্দোলন সৃষ্টির মাধ্যমে এ ফ্যাসিস্ট সরকারের বিদায়ী ঘন্টা বাজাতে হবে। বক্তাগণ আরও বলেন, প্রকৃত গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি রাজপথেই সমাধান দেবে। দেশকে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে রূপদানের জন্য আবারো ১৯৯০ সালের ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন করা ছাড়া বিকল্প কোন পথ নেই। বক্তাগণ আরও বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসাসহ নিঃশর্ত মুক্তি, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সকল মিথ্যা মামলা ও সাজা প্রত্যাহার এবং বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কারাবন্দি জননেতা অধ্যাপক মোঃ আসলাম চৌধুরী এফসিএ’র নিঃশর্ত মুক্তি ছাড়া বাংলাদেশে কোন পাতানো-সাজানো-নীল নকশার নির্বাচন জনগণ মেনে নেবে না।