বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ০৯:৩৬ অপরাহ্ণ

কিশোরীকে গণধর্ষণ
পটিয়া প্রতিনিধি॥
চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার শোভনদন্ডী ইউনিয়নের আশাতা গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে এক কলেজ ছাত্রীকে দফায় দফায় ধর্ষণের ফলে কলেজ ছাত্রী ৭ মাসের অন্তস্বত্তা হয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ ধর্ষক জাহেদ হোসেন সুমনকে আটক করেছে। জাহেদ হোসেন সুমন আশাতা গ্রামের মমতাজ করিমের পুত্র বলে জানাগেছে। সুমন আসাতা গ্রামে বাবা মমতাজের সাথে চায়ের দোকান পরিচালনা করে আসছে। চায়ের দোকান করার সুযোগে কলেজে আসা যাওয়া করার সময় ধর্ষিতা কলেজ ছাত্রীর উপর সুমনের কু-নজর পড়ে। সুমন উক্ত কলেজ ছাত্রীর সাথে প্রেমের অভিনয় করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারিরিক সর্ম্পক গড়ে তুলে। এতে বেশ কয়েক বার কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করায় কলেজ ছাত্রী ৭ মাসের অন্তস্বত্তা হয়ে পড়ে। কলেজ ছাত্রীর শারিরিক অবস্থা দেখে তার মা ঘটনা সর্ম্পকে অবগত হয়। গত ২০ এপ্রিল কলেজ ছাত্রীর মা পটিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে ওসি রেফায়েত উল্লাহ চৌধুরীর নিদের্শে এস আই হালিম ধর্ষক সুমনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। গতকাল সুমনের সাথে উক্ত কলেজ ছাত্রীকে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলেও পুলিশ ব্যর্থ হয়। পরে জাহেদ হোসেন সুমনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা রুজু করে।