বিয়ের আসরে ‘প্রেমিকাকে’ ছুরিকাঘাত এর সাজা ১৫ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশ:| রবিবার, ৮ মার্চ , ২০১৫ সময় ০৮:৫০ অপরাহ্ণ

নগরীতে বিয়ের আসরে ‘প্রেমিকাকে’ ছুরিকাঘাত করে আহত করার দায়ে  সেলিম নামে ‘প্রেমিককে’ দণ্ডবিধির পৃথক তিনটি ধারায় ১৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

একই সঙ্গে ১১ হাজার অর্থদণ্ড অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে রায়ে তিন ধারায় প্রদত্ত সাজা একই সঙ্গে চললে বলে উল্লেখ করায় তাকে মোট সাত বছর কারাভোগ করতে হবে।

রোববার চট্টগ্রামের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) মশিউর রহমান চৌধুরী এ রায় দিয়েছেন। আসামীর উপস্থিতি রায় ঘোষণার পর তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী মুত্তাকিন ইবনে মিনান বাংলামেইলকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি নগরীর পাঁচলাইশে অবস্থিত কিং অব চিটাগং কমিউনিটি সেন্টারে ডা.কাজী আসমা আনজুম নামে এক চিকিৎসকের বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। অনুষ্ঠানে দণ্ডিত মো. সেলিম (২৬) নিজেকে কনের প্রেমিকা পরিচয় দিয়ে তাকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর জখম করে। এসময় সেলিম নিজেও নিজের ছুরিকাঘাতে মারাত্মক জখম হন। পরে পুলিশ গিয়ে সেলিমকে গ্রেপ্তর করে। এ ঘটনায় কনের ভাই ডা.কাজী মুহাম্মদ আশিক আমান বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

রোববার ওই মামলায় দণ্ডবিধির ৩২৬ ও ৩০৭ ধারায় আসামিকে সাত বছর করে ১৪ বছরের কারাদণ্ড এবং পাঁচ হাজার টাকা করে দশ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই রায়ে আদালত জরিমানার টাকা অনাদায়ে এক মাস করে কারাদণ্ড দেন। এছাড়া দন্ডবিধির ৩০৯ ধারায় আদালত সেলিমকে আরও এক বছরের কারাদণ্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন।

তবে আদালত রায়ে তিনটি ধারায় দেয়া কারাদণ্ড একই সঙ্গে চলবে বলে আদেশ দেওয়ায় তাকে সব মিলিয়ে সাত বছর কারাভোগ করতে হবে।


আরোও সংবাদ