বিশ্বের সাথে এগিয়ে যেতে সাধারণ শিক্ষার ধর্মীয় শিক্ষা ও গুরুত্ব

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ২১ এপ্রিল , ২০১৮ সময় ০৯:২৭ অপরাহ্ণ

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে চন্দনাইশ বরকল ছালামতিয়া মাদ্রাসার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব ও নবীন-প্রবীণ মিলনমেলা অনুষ্ঠিত। মাদ্রাসার প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদ (প্রাশিপ)’র ব্যবস্থাপনায় সভাপতি মুহাম্মদ জসিম উদ্দীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ ২১ এপ্রিল’১৮ শনিবার সকাল ৯টা থেকে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন, অত্র মাদ্রাসার সাবেক কৃতি ছাত্র ও বাংলাদেশ পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জের বর্তমান অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ। প্রধান অতিথি ছিলেন, পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব সূফী মিজানুর রহমান। উদ্বোধক অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ বলেন, সাবেক এমপি সাবেক ও শিক্ষানুরাগী মরহুম সোনা মিয়া চৌধুরী ১৯৬৮ সালে বরকল ছালামতিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে বর্তমান অবদি প্রতিষ্ঠানটি দক্ষিণ চট্টলায় শিক্ষা বিস্তারে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে। বর্তমানে খুন, ধর্ষণ, মাদকাসক্তিসহ নানা সামাজিক অপরাধে যুবসমাজ জড়িয়ে যাচ্ছে, এসব সামাজিক অপরাধ থেকে যুবসমাজকে বাঁচাতে হলে প্রয়োজন নৈতিক শিক্ষার। নৈতিক শিক্ষার এ অন্যতম প্রাণকেন্দ্র হলো-মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা। এ ক্ষেত্রে বরকল ছালামতিয়া সুন্নীয়া আলিম মাদ্রাসা অনন্য। তিনি বলেন, মাদ্রাসার প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদ (প্রাশিপ) গঠন, সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজন ও মিলনমেলার মাধ্যমে নিঃসন্দেহে নবীন-প্রবীণদের মধ্যে সেতুবন্ধন রচনা করবে।
প্রধান অতিথি সূফী মিজানুর রহমান বলেন, উন্নত বিশ্বের সাথে এগিয়ে যেতে সাধারণ শিক্ষার সাথে সাথে ধর্মীয় নৈতিক শিক্ষার উপরও গুরুত্ব দিতে হবে। দ্বীনি ইলম ছাড়া জাতিকে পথ প্রদর্শন করা সম্ভব নয়। যখন কোন জাতি অন্যায় ও অপকর্মে লিপ্ত হয়েছে, তখনই আল্লাহ ঐ জাতির নিকট একজন নবীকে আল্লাহর কিতাব নিয়ে অর্থাৎ জ্ঞানসহ পাঠিয়েছেন। জাহেলিয়াতের যুগে আরবরা লুটতরাজ, রাহাজানি, গোত্রকলহ, যেনা-ব্যভিচার সহ যাবতীয় অন্যায় ও পাপ কাজে লিপ্ত ছিল। অতঃপর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নুরানী জ্ঞানের ছোঁয়ায় শুধু আরব বিশ্ব নয়, সারা জাহানে শান্তি প্রতিষ্ঠা হয়। বর্তমানেও এ সারা বিশ্বে বিভিষিকাময় অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য প্রয়োজন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রদর্শিত ইসলামের সূফিতাত্ত্বিক সঠিক জ্ঞান চর্চা। তিনি বলেন, আমাদের বাংলাদেশে এ দায়িত্ব পালন করছে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা। মাদ্রাসায় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা বর্তমানে দ্বীনি নৈতিক শিক্ষার পাশাপাশি আধুনিক মানসম্মত শিক্ষাও গ্রহণ করছে। ফলে দেশের বিভিন্ন সেক্টরে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর কৃতিত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সমর্থ হচ্ছে। ঐতিহ্যবাহি বরকল ছালামতিয়া আলিম মাদ্রাসা দীর্ঘ ৫০ বছর যাবত মাজহাব-মিল্লাতের সেবায় অনন্য ভূমিকা রাখছে। যার বাস্তব প্রমাণ বাংলাদেশ পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডি আই জি জনাব আবুল ফয়েজ আহমদ এ মাদ্রাসারই সাবেক ছাত্র। এছাড়াও ৫০বছর পূর্তিতে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ব্যতিক্রম এ আয়োজনও প্রশংসার প্রশংসনীয়।
মাওলানা ক্বারী মুহাম্মদ ফেরদৌসুল আলম খান আলকাদেরী ও জিএম শাহাদত হোছাইন মানিকের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ শওকত হোসেন ফিরোজ, মুহাম্মদ কমর উদ্দীন সবুর। প্রধান আলোচক ছিলেন অধ্যক্ষ আল্লামা শাহ খলিলুর রহমান নিজামী (মা:জি:আ)। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এডভোকেট মুহাম্মদ মোরশেদুল আলম খান। উপস্থিত ছিলেন, অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ মনছুরুল আলম, মুহাম্মদ আকতার ফারুক, মুহাম্মদ এমরানুল হক খান, মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম চৌধুরী, লায়ন মুহাম্মদ সেলিম উদ্দীন শিকদার, আলহাজ্ব ফেরদৌসুল আলম, মুহাম্মদ আবুল বশর চৌধুরী, মাওলানা হাফেজ নিজামুদ্দীন মুহাম্মদ আবু বকর, মাওলানা আবদুল মাবুদ ইসলামাবাদী, মুহাম্মদ অহিদুল আলম চৌধুরী, মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম, মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দীন সিদ্দিকী, মুহাম্মদ আবুল মনসুর, কাজী মুহাম্মদ আজিজুর রহমান।
মাদ্রাসার প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে স্মৃতি চারণ করেন, মাওলানা দিদারুল আলম চৌধুরী, আলহাজ্ব সাইদ বীন খায়ের, ুহাম্মদ আবদুর রহমান, মাহফুজুর রহমান কাজেমী, গাজী মুহাম্মদ জাহেদুল আলম, মুহাম্মদ শাহজাদা খান, মোস্তাফিজুর রহমান কাদেরী, মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, মুহাম্মদ আবদুল মুবিন, ওসমান গণি, হাসনাইন রেজা হাসিব, মীর জামশেদুল আলম, আমিনুর ইসলাম, জালাল উদ্দীন, মোশারফ হোসেন, খোরশেদুল আলম, আতাউর রহমান, মুহাম্মদ আরকান, রিজাত হোসাইন, শফিউল করিম খান, আমেনা খাতুন, শাহেদুল ইসলাম, সেকান্দর ইসলাম, আবদুল আলিম, আরিফুল ইসলাম, আদনান তাহির, শাহাদাত হোসেন মুন্না, আখতার হোসেন চৌধুরী, মনজুর মোরশেদ চৌধুরী, মুসাব্বির খান মাহি, মুহাম্মদ রমজান আলী খান, তৌহিদুল আলম চৌধুরী, মহিউদ্দীন চৌধুরী।
উল্লেখ্য- বরকল ছালামতিয়া মাদ্রাসার সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব উপলক্ষে চন্দনাইশ জুড়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলার প্রতিটি অলি-গলিতে এ উপলক্ষে সূফী মিজানুর রহমান ও ডিআইজি আবুল ফয়েজের ছবি সম্বলিত ব্যানার, পোস্টার, পেস্টুনসহ বিভিন্ন রঙ্গ-বেরঙ্গের পতাকা দিয়ে সাজানো হয়েছে।