বিশেষ কারণে পিছিয়ে আ’লীগের কাউন্সিল

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ১১:৪৮ অপরাহ্ণ

আ’লীগবিগত ২৮শে মার্চ দলের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা বাতিল করে নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আগামী ১০ ও ১১ জুলাই কাউন্সিলের নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে দলটি। তবে কি কারণে ক্ষমতায় থেকেও কাউন্সিলের তারিখ পরিবর্তন করেছে আওয়ামী লীগ এ নিয়ে জনমনে নানান প্রশ্ন উঠেছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনসহ নানান কারণে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দলটি। আওয়ামী লীগ নেতারা বলছে, দলের সম্মেলনে যারা কাউন্সিলর, ডেলিগেট আসেন, তারা তৃণমূল থেকে আসবে। নির্বাচন চলাকালে সম্মেলন হলে তারা আসতে পারবেন না। এ নির্বাচনের জন্য সম্মেলনের দিন পেছানো হয়েছে।
সূত্র থেকে আরও জানা যায়, কাউন্সিলের মাধ্যমে যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থী বাছাই করতে কিছুদিন সময় লাগছে। তাই সম্মেলনের তারিখ পেছানো হয়েছে। দলে একাধিক নেতাবৃন্দ থাকার কারণে নেতা বাছাই করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে দলকে। আর এ কারণেই কাউন্সিল পিছিয়েছে।
তাছাড়া আগামী জাতীয় সম্মেলনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারের অনেকটাই ভাগ্য নির্ভর করছে। সেখানে নির্ধারিত সময়ে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করে নতুন কাউন্সিলর গঠন করা একটু কঠিন।
এদিকে দেশের রাজনীতিতে অনেক পরিবর্তন হলেও আওয়ামী লীগ নিজ ক্ষমতাবলে নিজেদের স্থান শক্তভাবে ধরে রেখেছে। গত ১৯ মার্চ বিএনপি জাতীয় কাউন্সিল সম্পন্ন করেছে। এমনকি আংশিক কমিটিও ঘোষণা করেছে। এখন যেকোন মুহূর্তে আন্দোলনের ডাক দিতে পারে, যেটি সরকার পতনের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। এটি আ’লীগের কাউন্সিল পিছানোর একটি অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ও আওয়ামী রীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডটকমকে বলেন, জাতীয় সম্মেলন পিছানোর মূল কারণ ছিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।
তাছাড়া ইউনিয়ন পরিযদ নির্বাচন শেষ হলে শান্তি ও সুষ্ঠুভাবে সম্মেলনের কাজ করতে পারবো। বিশেষ কর্মীদের যাছাই-বাছাই করতে আমাদের সময় লাগছে।


আরোও সংবাদ