বিরোধী দলীয় নেত্রীর দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির পায়তারা সফল হবেনা-মহিউদ্দিন চৌধুরী

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৬ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:০৯ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান প্রতিনিধি ঃ৭১ সালের পাকহানাদার বাহিনী ও রাজাকার আলবদরদের সাথে যুদ্ধ করে আওয়ামী লীগ দেশ স্বাধীন করেছে, ৭১ সালের পাকহানাদার বাহিনীর দোসর যুদ্বপরাধীদের বাচানোঁর জন্য বিএনপি জামায়েত হেফাজত একজোট হয়ে দেশে নৈরাজ্য, আগুন দিয়ে মানুষ পোড়ানো, গাড়ী পুড়িয়ে আওয়ামী লীগকে ভয় দেখিয়ে লাভ নেই । আওয়ামী লীগ যে দেশ স্বাধীন করেছে, সেই দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভোমত্ব রক্ষায় জীবণ দিতে প্রস্তুত রয়েছে । আগামী ২৯ ডিসেম্বর বিরোধী দলীয় নেত্রী গণতন্ত্রের অভিযাত্রার নামে দেশের নৈরাজ্য সৃষ্টি করার পায়তারা করছে তা সফল হবেনা । চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় বিরোধী দলীয় নেত্রীর আহবানে কোন লোক যাবেনা । গতকাল ২৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাউাজান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে পাঁচদিন ব্যাপী বিজয় মেলার উদ্বোধনী অনুষ্টানে বক্তব্য প্রদানকালে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র এবি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী একথা বলেন । চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র এবি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী আরো বলেন ব্এিনপি জামাত, হেফাজত একজোট হয়ে ৭১ সালে বাংলার মানুষের রক্তে অর্জিত স্বাধীন বাংলাদেশকে আবারো পাকিস্তান রাষ্ট কায়েম করে এই দেশকে জঙ্গী তালেবান রাষ্ট বানাতে চাই । দেশের সকল মানুষ ঐক্যবদ্ব হয়ে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে অবস্থান কারী বিএনপি জামাত জোটের ষড়যন্ত্রকে প্রতিরোধ করার আহবান জানান চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র এবি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী । রাউজান বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজের পরিচালনায় পাঁচদিন ব্যাপী বিজয় মেলার উদ্বোধনী অনুষ্টানে আরো বক্তব্য রাখেন রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল, লায়ন প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহ, মুক্তিযোদ্বা আবু জাফর চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুসলিম উদ্দিন খান, রাউজানর থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা কাজী ইকবাল, রাউজান পৌর ষবার প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খানঁ, চেয়ারম্যান কাজী দিদারুল আলম, আবদুর রহমান চৌধুরী, মুক্তিযোদ্বা ও হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, জসিমউদ্দিন চৌধুরী, মাহাবুল আলম, নুরুল আমিন, প্রিয়তোষ চৌধুরী, শোয়েব খান, আবদুল লতিফ,যুবলীূগ নেতা গৌতম পালিত টিকলু,আজিজ উদ্দিন, মিটু চৌধুরী, জাবেদ রহিম. আবু সালেক,জেলা ছাত্রলীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন, জিল্লুর রহমান মাসুদ, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা দিপলু দে,রজিবুল হাসান রাজু, ইকবাল হোসেন, আশিফ প্রমুখ।