বিভিন্ন অপরাধে ৭টি হোটেলকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট , ২০১৬ সময় ০৯:৫৯ অপরাহ্ণ

পৃথক অভিযাননগরীর হোটেল, রেস্তোরাঁ ও বেকারির খাদ্যপণ্যগুলোতে পোড়া তেলের ব্যবহার থেমে নেই।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নিয়মিত বাজার মনিটরিংয়ের সময় পোড়া তেলে খাদ্যপণ্য তৈরির বিষয়টি হাতেনাতে ধরা পড়ে। এরপর জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর তেলগুলো নালায় ফেলে নষ্ট করে দেওয়া হয়।

সাগরিকা, বন্দর ও আগ্রাবাদের মোল্লাপাড়া এলাকায় পৃথক দুটি অভিযানে বিভিন্ন অপরাধে সাতটি হোটেল-রেস্তোরাঁকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাসের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে সাগরিকা এলাকার মদিনা হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টকে পোড়াতেল, নোংরা অপরিচ্ছন্ন রান্নাঘর ইত্যাদি অপরাধে ২০ হাজার টাকা, রান্নাঘরের সাথে বাথরুম, অপরিচ্ছন্ন রান্নাঘর ও নোংরা পানি ব্যবহারের দায়ে ফেন্সী হোটেলকে ৭ হাজার টাকা এবং দুলাল হোটেলকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আরেক সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন লংঘনের দায়ে চার প্রতিষ্ঠানকে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

অভিযানে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রি ও মোড়কে উৎপাদন, মেয়াদ ইত্যাদি উল্লেখ না থাকায় বন্দর এলাকায় মধুবন কনফেকশনারিকে ৩ হাজার টাকা, গুড ফুডসকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ছাড়া আগ্রাবাদের মোল্লাপাড়া এলাকায় পোড়ে তেলে বেকারিপণ্য তৈরি ও নোংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের জন্য সুমাইয়া বেকারিকে ১৫ হাজার টাকা এবং ভাই ভাই হোটেলকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভোক্তাস্বার্থ সংরক্ষণে এ ধরনের বাজার তদারকি কার্যক্রম নিয়মিত পরিচালিত হবে বলে জানিয়েছেন সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস।


আরোও সংবাদ