বিবাহিত মেয়েকে স্বামীর হাত থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার পায়তারা!

প্রকাশ:| শনিবার, ১৩ আগস্ট , ২০১৬ সময় ০৭:৪৫ অপরাহ্ণ

হলফনামা
সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও প্রতিনিধি: কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও চৌফলদন্ডীতে মেয়েকে স্বামীর হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়ে অন্যের হাতে তুলে দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে মেয়ের পরিবার। এ ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সংঘটিত ঘটনায় জড়িত অভিভাবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে স্বামীপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের খামার পাড়া এলাকায়।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ঈদগাঁও চান্দেরঘোনা এলাকার মৌলভী কামাল উদ্দীনের পুত্র মোঃ ইকবাল হাসানের সাথে পার্শ্ববর্তী চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের খামার পাড়া এলাকার নুরুল আজিমের কন্যা কানিজ সুলতানা খুিকর সাথে ইসলামী শরিয়া মোতাবেক গত ২০১২ সালের ৯ সেপ্টেম্বর নোটারী পাবলিক মুলে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। দীর্ঘদিন সুখে শান্তিতে বসবাস করে আসছিল এ দম্পতি।
জানা যায়, তারা উভয়ে দীর্ঘদিনে চলে আসা প্রেমের সম্পর্ককে পুর্ণরূপ দেওয়ার নিমিত্তে ঐদিন কক্সবাজারস্থ নোটারী পাবলিক কার্যালয়ে হাজির হয়ে ৫ লক্ষ টাকা মোহরানা ধার্য্য করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। যার রেজিষ্ট্রেশন নং ৬১০, উভয়ে ইসলামী শরিয়া মোতাবেক একে অন্যকে স্বামী-স্ত্রী রূপে পূর্ণ মর্যাদা দেওয়ার শর্তে হলফনামা পূরণ করেন। পরদিন পার্শ্ববর্তী খুটাখালী পাগলির বিল জামে মসজিদের ইমাম মৌলানা জসিম উদ্দীনের কাছে হাজির হয়ে ইসলামী শরিয়া মোতাবেক আকদনামাও পাঠ করেন। দীর্ঘদিন উভয়ে সুখে-শান্তিতে বসবাস করার পর পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে স্বামী ইকবাল হাসান বিদেশ পাড়ী জমান। এরই মধ্যে খুকির পরিবার তাকে বাপের বাড়ী বেড়াতে নিয়ে যায়। এসময় ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা-পয়সা ও প্রয়োজনীয় মালামাল নিয়ে যায়। এরপর খুকির বাবা তাকে অপহরণ করেছে মর্মে ইকবাল ও তার মাকে আসামী করে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি মিথ্যা অপহরণ মামলা দায়ের করেন যার নং জিআর ২৯১/২০১৬। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা একমাত্র ইকবাল হাসানকে আসামী দেখিয়ে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। এ বিষয়টি বিদেশে অবস্থানরত স্বামী ইকবাল হাসান জানতে পেরে দেশে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রয়েছে।
বিদেশ থেকে তিনি জানান, স্ত্রীকে রেখে পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে বিদেশে এসেছি। এসময় খুকির আত্মীয়-স্বজনরা পরিবারের অজান্তে বেড়াতে নেওয়ার নামে ফুঁসলিয়ে নিয়ে যায়। এসময় স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা-পয়সা নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন ইকবাল হাসান। বর্তমানে খুকিকে অর্থের লোভে একজন ধনাঢ্য ব্যক্তিকে বিয়ে দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে মামলার বাদী নুরুল আজিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজী হননি। তার ভাই এনামুল হক আনুর সাথে যোগাযোগের অনুরোধ জানায়। মোবাইলে সংযোগ না পাওয়ায় আনুর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। উল্লেখ্য এ ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে ব্যাপক রহস্যের ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়। স্বামী ইকবাল হাসানের মা মেহেরাজ বেগম মিতু তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করবেন বলেও জানান।