বিধ্বস্ত রাউজান, বেহাল রাস্তাঘাট, বিপর্যস্ত জনজীবন

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন , ২০১৭ সময় ১০:৪২ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান ঃ রাউজানে প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের পানির শ্রোতে সতী খালের ভাঙ্গনে হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, রাস্তাঘাটের বেহাল দশা ২শত ৬৪ বসতঘর বিধস্থ জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে । প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে সর্তা খালের ভাঙ্গনে রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর সর্তা উপেন্দ্র শীলের বাড়ী, এয়াসিন নগর মাওলনা আবদুল হকের বাড়ী, উত্তর সর্তা কাহী পাড়া নাজীর বাড়ী, গর্জনিয়া, উত্তর সর্তা সিকদার বাড়ী, হলদিয়া বইজ্যার হাট, পুরাতন বইজ্যার হাট, হলদিয়া, দক্ষিন ক্ষিরাম এলাকায় সর্তা খালের ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে খালের ভাঙ্গন দিয়ে প্রবাহিত পানির শ্রোতে হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের নিচের মাটি সরিয়ে নিয়ে যায় । ভবনটির নিচে চার ফুট গভীরতা সৃষ্টি হয়ে মাটি সরে যাওয়ায় ভবনটি ঝুকিপুর্ণ হয়ে পড়েছে । সর্তা খালের ভাঙ্গনের শ্রোতের পানিতে হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ভবনের সীমানা প্রাচীর বিধস্থ হয় । সর্তা খালের ভাঙ্গনে হলদিয়া ভিলেজ রোড, হলদিয়া উত্তর সর্তা হজরত আলী হোসেন শাহ, সড়ক(১) ও হজরত আলী হোসেন শাহ সড়ক (২),হলদিয়া বড়–য়া পাড়া সড়ক, সিকদার বাড়ী সড়ক, মাইজপাড়া সড়ক ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারছেনা । প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে সর্তা খালের ভাঙ্গন দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়ে গর্জনিয়া, হলদিয়া, বড়–য়া পাড়া, উত্তর সর্তা এলাকার ২শত ৬৪টি লোকজনের বসতঘর বিধস্থ হয় । হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্বা শফিকুল ইসলাম জানান সর্তা খালের ১৪টি স্থানে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে খালের ভাঙ্গন দিয়ে প্রবাহিত শ্রোতের পানিতে এলাকার মানুষের বাড়ী ঘর, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, জনগনের চলাচলের সড়ক সমুহ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয় । নয়ন ও আবু তাহের নামে দুইজনের মৃত্যু হয় । প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে এলাকায় ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পর সরকার প্রদত্ত দুই মেট্রিক টন চাউল ও ২৫ হাজার টাকা ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মধ্যে বিতরন করেছি । নিহত নয়ন ও আবু তাহেরের স্বজনদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে সরকারের দেওয়া টাকা প্রান করেছি । হলদিয়া ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্থ এলাকার লোকজন জানান, প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে যে সব স্থানে সর্তা খালের ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে এলাকার মানুষের বাড়ী ঘর ও রাস্তাঘাট, ইউপি ভবন ব্যাপক ভাবে ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে । সর্তা খালের ঐ সব ভাঙ্গনের স্থানে এলাকার বালুখেকোরা পাওয়ার পাম্প বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করায় খালের মধ্যে ব্যাপক ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়ে এলাকার মানুষের বাড়ীঘর রাস্তাঘাট, ইউপি ভবনের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে । প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে ডাবুয়া ইউনিয়নের পশ্চিম ডাবুয়া এলাকায় সর্তা খালের ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে পশ্চিম ডাবুয়া এলাকার বারৈই পাড়া এলাকার ২৫টি পরিবারের বসতঘর খালের মধ্যে বিলিন হয়ে পড়েছে । পশ্চিম ডাবুয়া গনীর ঘাট সড়ক, আকবর শাহ সড়কের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে । সর্তা খালের ভাঙ্গনে ও ডাবুয়া খালের ভাঙ্গনে চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়া, এলাকার শতাধিক পরিবারের বসতঘর পানিতে ডুবে বিধস্থ হয় । চিকদাইর সাহেব বাড়ী সড়ক, তকির সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারছেনা । হালদা নদীর বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়ে রাউজান পৌরসভার জলিল নগর পার্শ্ববর্তী চিকদাইর ইউনিয়নের রাউজানের নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নতুন হাটের পুর্ব পার্শ্বে চিকদাইর নোয়াজিশপুর সড়কের আকবর শাহ সেতুর পার্শ্বে সর্তার খালের ভাঙ্গনে নোয়াজিশপুর চিকদাইর সড়ক হুমকির মুখে পড়েছে । সর্তা খাল, ডাবুয়া খাল, কলমপতি খাল, খাসখালী খাল, রাউজান খাল, মুকছড়ি খাল, মঙ্গলছড়ি, খাল, বিটঢালা খাল, ভোমর ঢালা খাল, হরনাথ ছড়া খাল, ফটিকছড়ি খাল, বেরলিয়া খালের ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে রাউজান পৌর এলাকার চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটি সড়ক, হাফেজ বজলুর রহমান সড়ক, শফিকুল ইসলাম চৌধুরী সড়ক, শহীদ জাফর সড়ক, দোস্ত মোহাম্মদ চৌধুরী সড়ক, নাগেশ্বর গার্ডেন সড়ক, দক্ষিন হিংগলা কলমপতি সড়ক, অদুদ চৌধুরী সড়ক, রায় কিশোরী সড়ক, ডাবুয়া রাবার বাগান সড়ক, নন্দী পাড়া সড়ক, জগৎ ধর সড়ক ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় । রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হোসেন রেজা বলেন রাউজানে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য দশ মেট্রিক টন চাউল এক লাখ টাকা বরাদ্ব পেয়েছি । এই চাউল ও টাকা ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মধ্যে বিতরন করা হয়েছে ।