বিদ্যুতের কারণে বান্দরবানে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা অচল

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৭:৪৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান ॥
বান্দরবানে পৌর শহরে প্রায় পানি সরবরাহ ব্যবস্থা প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। ঘনঘন লোডশেডিং এবং লো-ভোল্টেজের কারণে গত এক সপ্তাহ ধরে বান্দরবানে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। পানির জন্য হাহাকার তৈরি হয়েছে শহরে।
জনস্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, বেশ কিছুদিন ধরে মাত্রাতিরিক্ত বৈদ্যুতিক লোডশেডিং ও লো ভোল্টেজের কারণে বান্দরবান পৌর পানি সরবরাহের পানি শোধনাগারের ৪০ অশ্বশক্তির ১টি সেন্টিফিউগ্যাল মোটরসহ ২টি পাম্পসেট ও ১৫ এবং ৭.৫ অশ্বশক্তির সাবমাসিবল পাম্প বিকল হয়ে যায়। যার ফলে শহরে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখা যাচ্ছে না। এতে বিভিন্ন মহল ও পানির গ্রাহকগণ নিয়মিত পানি সরবরাহের জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন। পৌর শহরের আর্মী পাড়ার বাসিন্দার শাফায়েত হোসেন, মেম্বারপাড়ার জিয়া উদ্দিন’সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের বাসিন্দাররা বলেন, গত এক সপ্তাহ ধরে শহরের বিভিন্ন এলাকায় কোন পানি সরবরাহ করা হচ্ছে না। এতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে জনসাধারণের। পাহাড়ী এলাকা হওয়ায় এখানে নদী ছাড়া পানির বিকল্প কোন উৎস নেই। বিশুদ্ধ পানীয় জলের জন্য একমাত্র পৌর পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উপরই শহরের মানুষ নির্ভরশীল। তাই পানি সরবরাহ ব্যবস্থা অনিয়মিত হয়ে পড়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। পৌর পানি সরবরাহের উপ-সহকারী প্রকৌশলী (তত্ত্বাবধায়ক) মো. মনজেল হোসেন জানান, গত ৩০ মার্চ সকালে বৈদ্যুতিক লো-ভোল্টেজের কারণে বালাঘাটা এবং ক্যাচিংঘাটাস্থ পানি শোধনাগারের পাম্পগুলো বিকল হয়ে যায়। যার ফলে শহরে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা প্রায় অনিয়মিত হয়ে পড়েছে। তবে স্ট্যান্ডবাই মোটরের ব্যবস্থা থাকায় আপাতত পানি সরবরাহ চালানো হচ্ছে। শিঘ্রই যান্ত্রিক ত্রুটি কাটিয়ে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হবে বলে জানান তিনি।
জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সোহরাব হোসেন জানান, বৈদ্যুতিক লো-ভোল্টেজের কারণে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা সাময়িক ভাভে বিঘিœত হচ্ছে। জরুরী ভিত্তিতে পাম্পগুলোর মেরামত কাজ সম্পন্ন করার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে মেরামত কাজের বরাদ্দের অনুরোধপত্র পাঠানো হয়েছে। সাধারণত বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক থাকলে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা কখনোই বিঘিœত হয়না।
প্রসঙ্গত: বান্দরবান পৌর এলাকায় সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় ৩ হাজার বান্দরবান পৌর পানি সরবরাহের গ্রাহক রয়েছেন।