বিদেশ পালাতে গিয়ে ডিবি পুলিশের খাঁচায়

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৮ নভেম্বর , ২০১৮ সময় ০৭:৫০ অপরাহ্ণ

জে.জাহেদ :

চট্টগ্রাম হতে ঢাকা। পরে মালয়েশিয়া পালাতে গিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তজার্তিক বিমান বন্দরে ১৩ লক্ষ পিস ইয়াবা মামলার এক পলাতক আসামীকে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর) পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

৭ নভেম্বর তিনি এমএইচ ০১৯৭ ফ্লাইট যোগে বিদেশে পালানোর সময় গ্রেফতার হন।

গ্রেফতারকৃত একই আসামীর ভিন্ন ভিন্ন নাম মোঃ রেজওয়ান, রেদোয়ান, জুবায়ের (৫৫)। সে চট্টগ্রাম জেলার বায়োজিদ বোস্তামী মোজাফফর নগর এলাকার মৃত মোঃ সিদ্দিক আহমেদ এর পুত্র বলে জানা যায়।

দীর্ঘদিন গোয়েন্দা পুলিশ তাকে ধরতে অভিযান চালালেও ধরতে পারেনি। যদিও পুলিশ আসামী যেনো বিদেশে পালাতে না পারে সে ব্যবস্থা করেছিলেন বলে সংবাদ সম্মেলন সুত্রে জানা যায়।

পুলিশ ও মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ৩মে হালিশহর থানাধীন শ্যামলী আবাসিক এলাকায় মহানগর ডিবি পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১) আশরাফ আলী (৪৭), ২) মোঃ হাসান(২২)’কে ১৩,০০,০০০ (তের লক্ষ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গ্রেফতার করেছিলেন।

যার হালিশহর থানার মামলা নং-০১, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন, ১৯৯০ সনের ১৯(১) এর টেবিল ৯(খ)/২৫/৩৩(১) মামলা দায়ের করেন মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর) পুলিশ।

এজাহার নামীয় গ্রেফতারকৃত আসামীদের পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে তারা ইয়াবা পাচারের সাথে জড়িত বলে স্বীকার করেন। এমনকি ঘটনার সাথে জড়িত অপরাপর আসামীদের নাম সহ গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ রেজওয়ান (৫৫) ওই মামলার জড়িত থাকার বিষয়ে এজাহার নামীয় ধৃত আসামী আশরাফ আলী(৪৭) ও রাশেদ মুন্না (৩৫) আদালতে ১৬৪ ধারার জবানবন্দী প্রদান করেন।

আরো জানা যায়, ইয়াবা ট্যাবলেট গুলোর মূল হোতা রোহিঙ্গা মোঃ আব্দুর রহিম। রোহিঙ্গা আব্দুর রহিম ও গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ রেজওয়ান(৫৫) এর সহিত পরষ্পর যোগ সাজেস রয়েছে। রোহিঙ্গা নাগরিক আব্দুর রহিম বিভিন্ন সময় বার্মা হতে ধৃত আসামী মোঃ রেজওয়ান (৫৫) সহ ইতিপূর্বে গ্রেফতারকৃত আসামীদের মাধ্যমে চট্টগ্রামে বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট ইয়াবা পাচার করত।

বার্মার নাগরিক আব্দুর রহিম এর শ্যালক ধৃত আসামী রাশেদ মুন্না (৩৫) বার্মা হতে আসা ইয়াবা ট্যাবলেট কার নিকট কী পরিমাণে পাচার করা হবে তা নির্ধারণ করত। ইয়াবা ট্যাবলেট গুলো মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট প্রদান করার পর তাদের নিকট হতে ইয়াবা বিক্রয়ের টাকা সংগ্রহ করে অবৈধ পন্থায় বার্মা অবস্থানকারী আব্দুর রহিম এর নিকট ধৃত আসামী রাশেদ মুন্না (৩৫) পাচার করত। ঘটনার সময় জব্দকৃত ১৩ লক্ষ পিস ইয়াবা বার্মা হতে পাচারের পর গ্রেফতারকৃত আসামী আশরাফ আলীর বাসায় রেখেছিল।

আসামী মোঃ রেজওয়ান(৫৫) ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার বার্মা থেকে রহিমের আনা ইয়াবা গ্রহণ করে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে প্রেরণ করেছে এবং সে আন্তজার্তিক মাদক পাচার দলের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করে বলে পুলিশ জানায়।