বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে অভাবনীয় পরিবর্তন আসছে ২০১৪ সালে

প্রকাশ:| সোমবার, ৩০ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ১০:৫৩ অপরাহ্ণ

images11বিস্ময়কর ১০ প্রযুক্তি আসছে ২০১৪ সালে। নাগালেই চলে আসবে ভূগর্ভস্থ বৃহত্তম হোটেল থেকে শুরু করে স্টার ওয়ার্স চলচ্চিত্রের মতো দৃশ্যমান যোগাযোগের প্রযুক্তি। গত শনিবার যুক্তরাজ্যের সংবাদপত্র টেলিগ্রাফে প্রকাশিত এ রকম ১০ প্রযুক্তি:
১. বিশ্বের যেকোনো স্থানে আপনার উপস্থিতি : বিশ্বের যেকোনো স্থানে আপনার উপস্থিতি চলমান ত্রিমাত্রিক (থ্রিডি) ছবি বিশ্বের যেকোনো স্থানে পৌঁছে দেওয়া যাবে এক মুহূর্তে। সশরীরে না হলেও আপনি এভাবেই বিরাজ করতে পারবেন সর্বত্র। স্টার ওয়ার্স ছবিতে এ রকম দৃশ্য রয়েছে। বাস্তবে এই প্রযুক্তি আনার চেষ্টা করছে পোল্যান্ডের লিয়া নামের একটি প্রতিষ্ঠান। তারা বাষ্পের মধ্যে লেজার রশ্মির মাধ্যমে যেকোনো মানুষের থ্রিডি ছবি তৈরি করতে পারে।

২. নতুন উচ্চতায় বিদ্যুৎ-চালিত গাড়ি : বিদ্যুৎ-চালিত গাড়ির (ইলেকট্রিক কার) জন্য ২০১৪ সালটি হতে পারে একটি স্মরণীয় বছর। চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে ১৩ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বের প্রথম ইলেকট্রিক কার রেসিং প্রতিযোগিতা বা ফর্মুলা ই রেসিং।

৩. অনলাইনে বিকিকিনি আরও দ্রুত৩ : অনলাইনে কেনাকাটার বড় একটি বাধা হলো, পণ্য পৌঁছানোয় দীর্ঘসূত্রতা। এ সময় মাত্র এক দিনে নামিয়ে আনার মতো বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসছে। অনলাইন বিকিকিনির বড় প্রতিষ্ঠান অ্যামাজান ও ইবে এ সুখবর জানিয়েছে।

৪. ভার্চুয়াল বাস্তবতা৪ : কম্পিউটার গেমসের কল্যাণে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি কথাটি অতিপরিচিত। কম্পিউটারে তৈরি একটি কৃত্রিম পরিবেশকে বাস্তবের আদলে রূপান্তরেই এই প্রযুক্তির কারিগরি। এমন কিছু প্রযুক্তি আসবে, যাতে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি কম্পিউটারের পর্দা ছেড়ে আমাদের চোখের সামনেই চলে আসবে।

৫. মহাকাশে পর্যটন : ২০১৪ সালের কোনো এক সময়ে পর্যটকদের নিয়ে মহাকাশে যাবে ভার্জিন গ্যালাক্টিকম নামের একটি প্রতিষ্ঠান। তখন একটি টেলিভিশন চ্যানেল সেই মহাকাশ ভ্রমণের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি সম্প্রচার করবে। এতে মহাকাশেও ঘটবে পর্যটনশিল্পের বিকাশ।

৬. এক কার্ডে সবকিছু : যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি পাঁচজনের একজনই পকেটে কোনো অর্থ রাখেন না। সব কেনাকাটায় তাঁরা ক্রেডিট কার্ডই ব্যবহার করেন। তবে একাধিক ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের ঝামেলা এড়াতে এক কার্ডেই সব কাজ চালানোর ব্যবস্থা চলে আসবে ২০১৪ সালে।

৭. মাটির নিচে হোটেল : চীনের সাংহাইয়ে ৩৪ কোটি ৫০ লাখ পাউন্ড ব্যয়ে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের গভীরতম ভূগর্ভস্থ হোটেল। পাঁচ তারকা ওই হোটেলের ১৭টি তলাই থাকবে মাটির নিচে।

৮. নতুন প্রযুক্তির রকেট ইঞ্জিন : পৃথিবী থেকে মঙ্গলে যেতে বর্তমান প্রযুক্তির রকেটে নয় মাস সময় লাগে। এই সময়-দূরত্ব কমিয়ে আনতে নাসা বানিয়েছে নতুন ধরনের ইঞ্জিন। এটি মানুষকে মঙ্গলে নিয়ে যেতে পারবে মাত্র তিন মাসেই।

৯. কেনাকাটায় আরও স্বচ্ছতা : পণ্যের গুণগত মান যাচাইয়ের পাশাপাশি কারা তৈরি করছে, কীভাবে তৈরি করছে, পণ্য তৈরির শ্রমিকেরা সঠিক মূল্য পাচ্ছেন কি না—এসব প্রশ্নের উত্তর দিতেই এসেছে বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট ও সার্চ ইঞ্জিন। এ রকম যাচাই করে নেওয়ার প্রবণতা ২০১৪ সালে আরও বাড়বে এবং তা পণ্যের প্রস্তুতকারী শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সহায়ক হবে।

১০. চিকিৎসায় আরও উন্নতি : মানব শরীরের সংবেদনশীল অঙ্গপ্রত্যঙ্গের চিকিৎসায় ২০১৪ সালে এ ধরনের চিকিৎসায় আরও অগ্রগতি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।