বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে আহত ৫

প্রকাশ:| শনিবার, ২২ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৮:৪৩ অপরাহ্ণ

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুককে তার নিজ এলাকা নোয়াখালীর সেনবাগে সংবর্ধনা দেয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সাথে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সেনবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলামসহ ৫জন আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার সেবারহাট বাজার এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৭জনকে আটক করে।

আটকরা হলেন- মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাফর উল্যাহ খান, বীজবাগ ইউনিয়ন যুবদল সেক্রেটারী মো. জাহিদ, বিএনপি নেতা মো. সুমন, সাইফুল ইসলাম, ইয়াকুব নবী সোহাগ, আমিরুল ইসলাম ও মো. তুহিন।

স্থানীয় লোকজন জানান, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকের কারামুক্তি উপলক্ষে তার নিজ এলাকা নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার সেবারহাটে সংবর্ধনার আয়োজন করে স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ সংবর্ধনা দেয়ার জন্য সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মোটরসাইকেল ও সিএনজিচালিত অটোরিকশায় নেতাকর্মীরা সেবারহাট বাজারে আসতে থাকে। পরে দুপুরের দিকে পুলিশ বিএনপি নেতকর্মীদের ওই স্থানে সংবর্ধনা দিতে বাধা দিলে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়ে মারে। একপর্যায়ে তারা সেবারহাট বাজারে গাছের গুড়ি ফেলে ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করে। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে লাঠিচার্জ করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশসহ ৫জন আহত হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিএনপির ৭ নেতাকর্মীকে আটক করে।

সেনবাগ থানার ওসি হারুন অর রশিদ চৌধুরী জানান, বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে রাস্তা অবরোধ না করে সংবর্ধনা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। কিন্তু তারা তা না করে সড়ক অবরোধ করে সংবর্ধনার আয়োজন করে। এতে পুলিশ বাঁধা দিলে সেনবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলামকে ইট মেরে আহত করে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।