বিএনপি আন্দোলনেও, নির্বাচনেও, আগামীতেও ব্যর্থ হবে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৬ জানুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৮:৫৫ অপরাহ্ণ

শওকত হোসেন করিম, ফটিকছড়ি:
ফটিকছড়িতে মাইজভান্ডার আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পুর্তি অনুষ্ঠানে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় রেলমন্ত্রী মো: মুজিবুল হক এমপি,বলেন বিএনপি রেলওয়ে কে ধবংস করে দিয়েছে তাদের আমলে রেলের কোন উন্নয়ন হয়নি, আন্দোলনের নামে আগুন দিয়ে রেলওয়ের অনেক সম্পত্তি পুড়িছে দিয়েছে। বিএনপি নেত্রী আগুন সন্ত্রাসের নেত্রী, বিএনপি নেত্রী পদে পদে ভূলের রাজনীতি করে যাচ্ছে। যুদ্ধাপরাধী জামাতকে সাথে নিয়ে বিএনপি নেত্রী আরো একটি বড় ভূল করেছে। তারা বিগত সময়ে আন্দোলনেও ব্যর্থ, নির্বাচনেও ব্যর্থ, এবং আগামীতেও ব্যর্থ হবে, তাই তাদের কোন ভবিষ্যৎ নেই। সে জন্য তাদের নেতাকর্মীরা হতাশাগ্রন্থ হয়ে পড়েছে। বর্তৃমান সরকার রেল ব্যবস্থাকে আধুনিক্য়ান করে বাংলাদেশে,রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো উন্নত করতে কাজ করে যাচ্ছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম ডাবল লাইন নিমার্ন শেষ পর্যায়ে রয়েছে, চট্টগ্রাম কক্য্রবাজার হয়ে টেকনাফ পযর্ন্ত রেলের লাইন নির্মাণ করা হবে, যার টেন্ডার ইতিমধ্যে আহবান করা হয়েছে। পর্দ্মা সেতুতে রেল সংযোগ স্থাপন করা হচ্ছে। নতুন নতুন রেলের বগি ইঞ্জিন আনা হচ্ছে, সব সম্ভব হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আছে বলে;। উপমহাদেশের আধ্যাত্ম জগতের সুফি সাধক মাইজভান্ডারী তরিকার প্রবর্তক অলিকুল শিরমনি হযরত মাওলানা শাহসুফি সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারীর নামে প্রতিষ্ঠিত চট্টগ্রামের অন্যতম সুপ্রাচীন প্রতিষ্ঠান “মাইজভান্ডার আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের” শতবর্ষ পুর্তি উদযাপন উপলক্ষে দুই দিন ব্যাপী অনুষ্ঠান গতকাল শুক্রবার শুরু হয়েছে। ১ম দিনে বর্নাঢ্য র‌্যালীর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সুচনা করা হয়। কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা এটিএম পেয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়াম্যান এম এ ছালাম, বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: জাফর আলম, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য ড. মাহমুদ হাসান, ফটিকছড়ি আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবুল হক, ফটিকছড়ি আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: নাজিম উদ্দিন মুহুরী প্রমুখ। বক্তরা আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় অত্র এলাকায় শিক্ষা বিস্তারে শতবছর ধরে আলোকবর্তিকা জালিয়ে আসছে তার জন্য মাইজভান্ডারের আওলাদদের প্রতি কৃতঞ্জতা জানান। সবশেষে দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের অংশগ্রহনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।
২য় দিনে সভাপতিত্ব করবেন শাহসূফী ডা. সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভান্ডারী। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছিন উদ্দিন, বিশেষ অতিতি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো: সামসুল আরেফিন, পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যান সূফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, প্রপসার ড. আবুল কাসেম, লেলাং ইউপি চেয়াম্যান সারোয়ার উদ্দিন চৌধুরী শাহীন।