বিএনপির ঘাঁটি ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে-ওবায়দুল

mirza imtiaz প্রকাশ:| রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০১:১৩ অপরাহ্ণ

পটিয়া প্রতিনিধি:: রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কর্ণফুলীর পাড়ের ক্রসিং এলাকায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব! চট্টগ্রামের মানুষ জানে, কর্ণফুলী হচ্ছে বিএনপির ঘাঁটি! সেই ঘাঁটি দেখে যান, ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। কর্ণফুলী এখন আওয়ামী লীগের সঙ্গে।কর্ণফুলী এখন শেখ হাসিনার সঙ্গে। কর্ণফুলী এখন তরুণ জননেতা জাবেদের সঙ্গে।’

সেতুমন্ত্রী আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কর্ণফুলী-আনোয়ারা আসনে প্রার্থী হিসেবে ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন ।

তিনি বলেন, দেখতে দেখতে ১০ বছর, মানুষ বাঁচে কয় বছর? দেখতে দেখতে ১০ বছর, আন্দোলন হবে কোন বছর? ১০ বছরে হয়নি, এক মাসে হবে? মানুষ এখন ইলেকশনের নীড়ে। এখন কেউ আন্দোলন চায় না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি কোটার ওপরে ভর করেছে আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে। তারপরে ছাত্রছাত্রীদের নিরাপদ সড়কের মধ্যে ঢুকেছে। ভুয়া প্রমাণ হয়েছে ৪ মহিলাকে আটকে রাখার ঘটনা, একজনকে রেপের ভিডিও। চোখ চলে গেছে আওয়ামী লীগ কর্মীর। কোনো কোনো মিডিয়া প্রচার করলো আন্দোলনরত এক ছাত্রের চোখ চলে গেছে।এটা গুজব সন্ত্রাস। গুজব সন্ত্রাস এখনো আছে। এ সন্ত্রাস প্রতিরোধ করতে হবে। আন্দোলনে জনগণ আর সাড়া দেবে না। বিএনপির একটি কাজ এ চট্টগ্রামে দেখান। যে কাজ দেখিয়ে ভোট চাইতে পারে। ভোট চাওয়ার মতো কোনো কাজ নেই। নোমান সাহেব, আমির খসরু সাহেবের বড় বড় কথা, লাগাম ছাড়া কথা আছে। তাদের কোনো কাজ নেই।

ঐক্যবদ্ধ থাকার ওপর গুরুত্বারোপ করে নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, জনগণের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করবেন। ঘরের মধ্যে ঘর করবেন না। মশারির মধ্যে মশারি টাঙাবেন না। ঐক্যবদ্ধ থাকেন। ঐক্যের রেজাল্ট আছে। গাজীপুরে আমরা ঐক্যবদ্ধ, জিতেছি। খুলনায় ঐক্যবদ্ধ আমরা জিতেছি। সিলেটে কলহ ছিল, সামান্য ভোটে হেরেছি। কক্সবাজারে আওয়ামী লীগ কত বছর আগে জিতেছে! আমার মনে নেই।আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ জামাল আহমেদ প্রমুখ।