বিআইডাব্লিউটিসি বহরে যুক্ত হয়েছে দেশে তৈরি যাত্রীবাহী জাহাজ ‘এমভি বাঙালি’

প্রকাশ:| শনিবার, ২৯ মার্চ , ২০১৪ সময় ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ

যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত রয়েছেন বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী
ঢাকা থেকে বরিশাল নৌপথে চলাচলের জন্য বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডাব্লিউটিসি) যাত্রীবাহী নৌযান বহরে যুক্ত হয়েছে দেশে তৈরি যাত্রীবাহী জাহাজ ‘এমভি বাঙালি’।রক্ত দিয়ে হলেও বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলার মানুষকে বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে আসীন করতে তিনি যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত রয়েছেন বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রয়োজনে বাবার মতো বুকের রক্ত দিয়ে যাবো। মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করবো। এই ওয়াদা দিয়ে গেলাম।”

শনিবার দুপুরে বিআইডব্লিউটিসি’র নবনির্মিত যাত্রীবাহী জাহাজ ‘এমভি বাঙালি’র উদ্বোধন শেষে জাহাজে করে চাঁদপুর জেলার মতলব থানার মোহনপুর নদী বন্দরে পৌঁছ‍ান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মোহনপুরের নদীর তীরে স্বতঃস্ফূর্ত জনতার ‍উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার সকালে সদরঘাটে জাহাজটির উদ্বোধন করেন। পরে তিনি এটিতে চড়ে চাঁদপুরের মোহনপুরের পথে রওনা দেন।

প্রধানমন্ত্রীর সাথে রয়েছেন, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, সাংসদ মোহাম্মদ সেলিম ও সাংসদ কাজী ফিরোজ রশীদ চৌধুরী প্রমুখ।

আরো একটি নতুন যাত্রীবাহী জাহাজ ‘এমভি মধুমতি’ জুন মাসে বিআইডাব্লিউটিসির যাত্রীবাহী জাহাজ বহরে যুক্ত হবে।

দুটি জাহাজই নির্মাণ করেছে চট্টগ্রামের ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লিমিটেড।

২০১২ সালের অক্টোবর মাসে জাহাজ দুটি নির্মাণের চুক্তি হয়। বিআইডাব্লিউটিসির নিজস্ব অর্থায়নে জাহাজ দুটি নির্মাণে ব্যয় হয় ৫১ কোটি ২৩ লাখ টাকা।

‘এমভি বাঙালি’ জাহাজের যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ৭৫০ জন, এর মধ্যে ভিআইপি/ফ্যামিলি স্যুট কেবিন চারটি, প্রথম শ্রেণি ডাবল কেবিন ৩৪টি, সিঙ্গেল কেবিন চারটি, দ্বিতীয় শ্রেণি ডাবল কেবিন ১৮টি, দ্বিতীয় শ্রেণি চেয়ার ৮৪ জন, তৃতীয় শ্রেণি মেইন ডেক ৪০০ জন, তুতীয় শ্রেণি আপার ডেক ১৫০ জন।