বার কাউন্সিল নির্বাচন কাল

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট , ২০১৫ সময় ১০:০১ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ বার কাউন্সিআইনজীবীদের সনদ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বুধবার।

ইতোমধ্যে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার কাজ শেষ হয়েছে। নির্বাচনে চারটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। তবে আওয়ামী সমর্থিত আইনজীবীদের সম্মিলিত সমন্বয় পরিষদ (সাদা প্যানেল) এবং জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য (নীল প্যানেল) প্যানেলের মধ্যে মূল লড়াইটা হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

সাদা প্যানেল
সাধারণ আসনে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন— ব্যারিস্টার এম আমীর উল ইসলাম (ব্যালট নং-১৬), আব্দুল বাসেত মজুমদার (ব্যালট নং-২), আব্দুল মতিন খসরু (ব্যালট নং-৩), ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ (ব্যালট নং-২৭), পরিমল চন্দ্র গুহ (ব্যালট নং-১৩), জেড আই খান পান্না (ব্যালট নং-১০), শ ম রেজাউল করিম (ব্যালট নং-২৮)।

এ ছাড়া সাদা প্যানেলে গ্রুপ-এ প্রার্থী হয়েছেন গোলাম মোস্তফা খান (ব্যালট নং-৩), গ্রুপ-বি মো. আবদুল বাকী মিয়া (ব্যালট নং-৩), গ্রুপ-সি কবির চৌধুরী (ব্যালট নং-২), গ্রুপ-ডি কাইমুল হক রিংকু (ব্যালট নং-৩), গ্রুপ-ই আব্দুল মালেক (ব্যালট নং-২), গ্রুপ-এফ মো. ইসহাক (ব্যালট নং-২) ও গ্রুপ-জি থেকে এ কে এম হাফিজুর রহমান (ব্যালট নং-১) ।

নীল প্যানেল
সাধারণ আসনে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন— এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন (ব্যালট নং-৯), এ জে মোহাম্মদ আলী (ব্যালট নং-১), ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন (ব্যালট নং-৭), মো. সানাউল্লাহ মিয়া (ব্যালট নং-২৫), মো. বদরুদ্দোজা বাদল (ব্যালট নং-২০), মো. বোরহানউদ্দিন (ব্যালট নং-৬), মো. মহসিন মিয়া (ব্যালট নং-২১)।

এ ছাড়া নীল প্যানেলে গ্রুপ আসনে প্রার্থী হয়েছেন গোলাম মোস্তফা খান।

গোলাপী প্যানেল
নির্বাচনে সাধারণ আসনে প্রার্থী হয়েছেন— সুব্রত চৌধুরী (ব্যালট নং-৩১), শাহ মো. খসরুজ্জামান (ব্যালট নং-২৯), এ কে এম জগলুল হায়দার আফরিক (ব্যালট নং-৮), আব্দুল মোমেন চৌধুরী (ব্যালট নং-৪), সারওয়ার-ই-দীন (ব্যালট নং-৩০), মো. হেলাল উদ্দিন (ব্যালট নং-২৬), মো. শামছুল হক (ব্যালট নং-২৪)।

অপর একটি প্যানেলের নাম আইনজীবী ঐক্য পরিষদ। যার নেতৃত্বে রয়েছেন এ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ।

প্রতি তিন বছর পরপর আইনজীবীদের এ বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ইতোমধ্যে নির্বাচনের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের নিচতলায় ভোটার তালিকা টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বুধবার সুপ্রীম কোর্ট বার এ্যাসোসিয়েশন ভবনে স্থাপিত ভোটকেন্দ্রসহ দেশের সব জেলার দেওয়ানি আদালতে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রগুলোতে সকল দেওয়ানি আদালতের বিচারকগণ প্রিজাইডিং অফিসারে দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনে সংশোধিত ভোটার তালিকা অনুযায়ী সারাদেশের মোট ৪৩ হাজার ৩০২ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ১৫ জন সদস্যের সমন্বয়ে পরিচালিত হয়ে থাকে। এর মধ্যে রাষ্ট্রের এ্যাটর্নি জেনারেল পদাধিকার বলে এর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। আর ১৪ জন আইনজীবীর সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন। এবার বার কাউন্সিলের মোট ভোটার সংখ্যা ৪৩ হাজার ৩০২ জন।

জাল ভোট প্রতিরোধে ভোটকেন্দ্রে নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র এবং নিজ আইনজীবী সমিতির পরিচয়পত্র নিয়ে যেতে বলা হয়েছে। সাধারণ আসনে সাত এবং সাতটি গ্রুপ আসনে প্রত্যেক এলাকার স্থানীয় আইনজীবী সমিতির সদস্যদের মধ্য থেকে একজন করে সাতজনকে নির্বাচিত করবেন। এ ছাড়া বাজিতপুর, ঈশ্বরগঞ্জ, দূর্গাপুর, ভাঙ্গা, চিকন্দি, পটিয়া, সাতকানিয়া, ফটিকছড়ি, সন্দ্বীপ, হাতিয়া, নবীনগর ও পাইকগাছাসহ ৭৭টি কেন্দ্রে ভোট প্রদান করা যাবে।

এর আগে বার কাউন্সিল ঘোষিত সংশোধিত তফসিল অনুসারে ২০ মে এই নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। গত ১৭ মে বার কাউন্সিলের নির্বাচন স্থগিত ও বার কাউন্সিল আইন (সংশোধন) ২০০৩ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে দুটি রিট করেন আইনজীবী ইউনুস আলী আকন্দ। ওই রিটের শুনানি নিয়ে ২১ মে হাইকোর্টের বেঞ্চ বার কাউন্সিল নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন। পরবর্তী সময়ে আপিল বিভাগ বার কাউন্সিলের নির্বাচনের জন্য ২৬ আগস্ট পুনর্নির্ধারণ করেন। পরে ৫ আগস্ট বার কাউন্সিল নির্বাচনের ভোটার তালিকা আদালতে দাখিল করেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সাদা ও নীল এবং গোলাপী প্যানেলের প্রার্থীরা প্যানেল পরিচিতি, ব্যক্তিগত পরিচিতি, বারের অতীতের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও নির্বাচনে জয়ী হলে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতির লিফলেট ও ব্যানার আদালত পাড়ায় বিতরণ করছেন। এ ছাড়াও প্যানেল পরিচিতির ছবিসহ বড় বড় ব্যানার আদালত পাড়ার বিভিন্ন দেয়ালে টাঙানো হয়েছে। একই সঙ্গে প্রার্থীরা দেশের বিভিন্ন জেলা বারে ঘুরেছেন। – See more at: http://www.dainikamadershomoy.com/2015/08/25/44724.php#sthash.at8S9b0W.dpuf