বান্দরবানে স্বর্ণ মন্দিরে পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ০৮:০৩ অপরাহ্ণ

স্বর্ণ জাদী
বান্দরবান প্রতিনিধি ॥
বান্দরবানের অন্যতম পর্যটন স্পট বৌদ্ধ ধাতু জাদী স্বর্ন মন্দিরে পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারী থেকে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে বলে নোটিশ টাঙ্গিয়ে দেয়া হয়েছে মন্দিরের গেইটে। বিষয়টি নিশ্চিত করে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের তীর্থ স্থান নামে পরিচিত বৌদ্ধ ধাতু স্বর্ন মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা উপঞঞা জোত মহাথেরো উচহ্লা ভান্তে গনমাধ্যমকর্মীদের জানান, ভ্রমন পিপাসু পর্যটকরা বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় এ প্রতিষ্ঠানের পরিবত্রতা এবং মর্যাদাহানী করছে। মন্দিরের বৌদ্ধ মূর্তিগুলোর সঙ্গে বিভিন্ন অসৌভন ভঙ্গিতে ছবি তোলে এবং তার ফেসবুকে আপলোড করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত আনছে। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটির সদস্য এবং বৌদ্ধ ভান্তেদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করার কারণে মন্দির পরিচালনা কমিটি এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারী থেকে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। তবে পূজারীরা অনুমতি স্বাপেক্ষে মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন।

পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যবসায়ীরা জানান, বান্দরবানের পর্যটন শিল্পের বিকাশে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের তীর্থস্থান নামে পরিচিত স্বর্ণ মন্দিরের ভূমিকা কম নয়। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পবিত্রতা রক্ষা করা সকলের দায়িত্ব। কিন্তু অন্যতম পর্যটন স্পট স্বর্ণ মন্দিরে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারী থেকে অনিদিষ্টকালের জন্য পর্যটকদের ভ্রমনে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা জেলার পর্যটন শিল্পের ক্ষতি বয়ে আনবে। ভ্রমন পিপাসু ঢাকার পর্যটক সুলতানা ইয়াসমিন ও নাভিল রহমান দম্পতি বলেন, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পবিত্রতা রক্ষায় নেয়া সিদ্ধান্ত যৌক্তিক। কিন্তু এটি পর্যটন মন্ত্রণালয়ের ঘোষিত পর্যটন স্পটগুলোর অন্যতম। সেক্ষেত্রে কোনো অজুহাতে পর্যটকদের ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ কোনোভাবেই যুক্তি সঙ্গত হতে পারেনা। আর ভিতরে ঢুকতে না দিলেও দূর থেকে দেখার সুযোগতো থাকছেই।
বৌদ্ধ মন্দির
প্রসঙ্গত: সাম্প্রতিক সময়ে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের তীর্থ স্থান নামে পরিচিত বৌদ্ধ ধাতু স্বর্ন মন্দিরের পর্যটকদের জুতা পায়ে প্রবেশ, বৌদ্ধ মূর্তির সঙ্গে অসৌভন ভঙ্গিতে ছবি তোলা এবং মন্দিরে প্রবেশে টিকেট সংগ্রহ করা নিয়ে প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বে কর্মরত ভান্তের সঙ্গে ভ্রপন পিপাসু মানুষদের বাকবিতন্ডা এবং হাতহাতির ঘটনা ঘটেছিল কয়েকবার। মন্দিরের পবিত্রতা রক্ষায় পরিচালনা কমিটি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।