বান্দরবানে পৌর মেয়র’সহ ২ বিএনপি নেতাকে বহিস্কার

প্রকাশ:| বুধবার, ৩ জুন , ২০১৫ সময় ০৭:৩৫ অপরাহ্ণ

বান্দরবান প্রতিনিধি

বান্দরবানে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে জেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক (পৌর মেয়র) মোহাম্মদ জাবেদ রেজা এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদ’কে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। দলীয় কার্যনির্বাহী কমিটির জরুরী সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আজ বুধবার বিকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপক মো: ওসমান গনি।

দলীয় নেতারা জানায়, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী’তে গরীব-দুস্থ্যদের খাবার বিতরণের সময় বান্দরবান পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ জাবেদ রেজা এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদের নির্দেশে তাদের অনুসারীরা দলের সভাপতি’সহ বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা এবং সিনিয়র সহ-সভাপতির অফিস ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবাররাতে জেলা বিএনপি সভাপতি সাচিং প্রু জেরীর সভাপতিত্বে বাসভবনস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে জরুরী সভায় অন্যান্যদের মধ্যে জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপক মোঃ ওসমান গনি, সহসভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ, সাধারন সম্পাদক আজিজুর রহমান, যুগ্ন সম্পাদক মোঃ মুজিবর রশিদ’সহ অঙ্গসংগঠনের সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপক মো: ওসমান গনি জানান, সভায় সাম্প্রতিক সময়ে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদ এবং ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ও পৌর মেয়র জাবেদ রেজার বিরুদ্ধে দলের মধ্যে কোন্দল সৃষ্টি এবং দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ আনা হয়। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদ এবং ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ জাবেদ রেজা’কে দলীয় সকল পদ থেকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় গৃহিত সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে রেজুলেশন তৈরি বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কাছে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত: দলীয় কর্মসূচী পালন’সহ বিভিন্ন ইস্যুতে জেলা বিএনপির সভাপতি সাচিং প্রু জেরীর সঙ্গে পৌর মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজা’সহ দলের একাংশের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। মতপার্থক্য থেকে আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে জেরী-জাবেদ বিএনপির দু’গ্রুপের নেতাকর্মীরা সাম্প্রতিক সময়ে একাধিকবার সংঘর্ষে জড়িয় পড়েন। সংঘর্ষের ঘটনায় দু’গ্রুপের নেতাকর্মীরা পাল্টাপাল্টি থানায় একাধিক মামলা করেছে।