বাজার দখল ও উচ্ছেদ প্রচেষ্ঠার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৮:৩৪ অপরাহ্ণ

পটিয়া প্রতিনিধি॥
পটিয়া পৌরসভা নিয়ন্ত্রণাধীন পুরাতন পৌর থানাহাট দখল ও উচ্ছেদ প্রচেষ্ঠার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনেছে পটিয়া পৌর কর্তৃপক্ষ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পটিয়া পৌরসভা সম্মেলন কক্ষে পৌরসভা কর্তৃপক্ষের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন পৌর মেয়র ও পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক হারুনুর রশিদ।
তিনি বলেন, কতিপয় স্বার্থন্বেষী মহল কর্তৃক পৌসভার নিয়ন্ত্রনাধীন পুরাতন থানা হাটের ক্ষতিগ্রস্থ ভূমির মালিকদের ব্যানারে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আবুল কালাম আযাদ যে বক্তব্য তুলে ধরেছেন তা সম্পূর্ণ বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। এ বাজারটি পটিয়ার একটি ঐতিহ্যবাহী বাজার। ১৯৮৫ সালে বিভিন্ন ব্যক্তির দানকৃত ৮ টি দলিলের মাধ্যমে ৬০ শতক জায়গার উপর বাজারটি প্রতিষ্ঠত হয়েছিল। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখনো পর্যন্ত পৌরসভা কর্তৃপক্ষ প্রতিবছর ইজারা প্রদান করে যাচ্ছে। চলতি বছরে উক্ত বাজাটি তেত্রিশ লক্ষ চৌত্রিশ হাজার টাকার ইজারা প্রদান করেছে। হাটের ইজারার ৫ শতাংশ ভূমি রাজস্ব, ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ৫ শতাংশ আয়কর সরকারকে নিয়মিত পরিশোধ করে আসছে পটিয়া পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বর্তমানে যেখানে বাজার বসে সেখানে জমির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় তৎকালীন ১৪ নং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ জায়গা দখলের পায়তারা চালাচ্ছে। উক্ত জায়গার আট দলিল দাতাদের মধ্যে শুধুমাত্র আবুল কালাম আযাদ অর্থলোভে ও হীন মানসিকতায় সরকারকে বিভ্রান্ত করে বাজার না বসার অজুহাতে কোটি কোটি টাকার সরকারী সম্পত্তি গ্রাস করার ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। অন্য ৭ জন দলিল দাতা জায়গা ফেরতের জন্য কোন আবেদন করে নি। তিনি দীর্ঘদিনের চলমান পুরাতন বাজারটি চলমান রেখে সরকারী সম্পত্তি রক্ষার্থে সংশ্লিষ্ঠ সকলের একান্ত সহযোগীতা কামনা করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভার সাবেক মেয়র নুরুল ইসলাম, সাবেক মেয়র রফিক আহমদ, কাউন্সিলরের মধ্যে গোফরান রানা, শফিউল আলম, খোরশেদ গনি, কামাল উদ্দিন বেলাল, আবু ছৈয়দ, শেখ সাইফুল ইসলাম, আবদুল খালেক, ্আবদুল মান্নান, বুলবুল আকতার, ইয়াছমিন আকতার, ফেরদৌস বেগম প্রমুখ।
এদিকে অভিযুক্ত আবুল কালাম আযাদ বলেন, ‘উচ্চ আদালতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে পৌর মেয়র জায়গা দখলের পায়তাঁরা চালাচ্ছে। এ হীন প্রচেষ্ঠা কোনবস্থায় বাস্তবায়ন হবে না।


আরোও সংবাদ