বাঙালির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য-চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধ একসূত্রে গাঁথা

প্রকাশ:| সোমবার, ১৯ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ০৯:২৮ অপরাহ্ণ

mm
মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, বাঙালির ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক চেতনা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সাথে একই সূত্রে গাঁথা। একাত্তরে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সকলেই দেশ মাতৃকার মুক্তিপণে অগ্রবর্তী বাহিনীর ভূমিকা পালন করেছে। তিনি আরো বলেন, সংস্কৃতিকর্মীরা মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার অন্যতম প্রধান শক্তি এবং তাদের সাথেই বিজয় মেলার আয়োজন বিগত বছরগুলোতে সুসম্পন্ন হয়েছে। এ বছরও সেই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আজ বিকেলে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের কো-চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ ইকবাল হায়দার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক স্কোয়াডের সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি একথা বলেন।

তিনি সংস্কৃতিকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসনের বিরূপ প্রভাবে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি ক্ষত-বিক্ষত হচ্ছে। নতুন প্রজন্ম শেকড়চ্যুত হয়ে বিপথগামী হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার বিজয় মঞ্চ থেকেই এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধের প্রেরণা আহরণের জন্য তিনি সংস্কৃতিকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান এবং বিজয় মঞ্চের সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মানোন্নয়ন এবং প্রতিভাবানদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সাংস্কৃতিক স্কোয়াডকে প্রস্তুতি গ্রহণের পরামর্শ দেন।
সংস্কৃতি সচিব তপন বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন মহাসচিব মোহাম্মদ ইউনুস, মুক্তিযোদ্ধা জেলা কমান্ডার শাহাবুদ্দিন আহমদ, মহানগর কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, জাহাঙ্গীর চৌধুরী সিইনসি স্পেশাল, মহিউদ্দিন বাচ্চু, ফরিদ মাহমুদ, এস.এম সাইদ সুমন, শেখ নাছির আহমদ, নুরুল আজিম রনি, ওস্তাদ অরিন্দম চক্রবর্ত্তী, অলোক ঘোষ পিন্টু, বিক্রম চৌধুরী, প্রদীপ খাস্তগীর, সুচরিত দাশ খোকন, রমিজ আহমেদ, স্বপন কুমার দাশ, বাবুল আচার্য, বিপুল পাল, রতন দেব, আফরোজা বেগম, মনিকা ইসলাম, রীতা চৌধুরী, মোহাম্মদুর সাজ্জাদ, বনবিহারী চক্রবর্ত্তী, মো: সুজন খান, সাদরে এলাহী পিয়াস, দেব প্রসাদ ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।