বাঙালির জয়যাত্রায় একুশ জাগরণের শক্তি

প্রকাশ:| সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

ডিসি হিলে একুশে বইমেলার আলোচনা সভায় বক্তারা

একুশের বইমেলার আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বাঙালি বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। এই জয়যাত্রায়র মহান একুশ আমাদের জাগরণে শক্তি। তিনি আরো বলেন, বাংলা ভাষা বিশেষ কোন জাতিগোষ্ঠীর মুখের ভাষা নয়, পৃথিবীর সকল মাতৃভাষা রক্ষায় বাংলাভাষা আদর্শিক সোপান। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ডিসি হিলের নজরুল মঞ্চে একুশে মেলার সপ্তম দিনের আলোচনা সভায় বক্তারা একথা বলেন। বক্তারা ঘোষণা করেন, একুশের শোকাহত ভাষা দিবসকে যারা ‘উৎসব’ হিসেবে পালন করতে উদ্যোগী হয়েছে তাদেরকে আমরা চিনি। কোনভাবেই তাদের ছাড় দেয়া হবে না। তারা জামাত শিবিরের ছা-পোষা এজেন্ট। তাদের পরিচয় ভূয়া সাংবাদিক ও পরজীবি সংষ্কৃতিকর্মী। আজ একুশের প্রথম প্রহরে তাদের বিরুদ্ধে মরণপণ যুদ্ধ শুরু হবে। বক্তাগণ আরও বলেন, বাংলা ও বাঙালি বিশ্ব সভ্যতার আলোক বর্তিকা। জঙ্গীবাদ আজ সভ্যতা বিরোধী নাশকতায় ফনা তুলেছে। বাঙালি সংস্কৃতির শুদ্ধ জাগরণের মধ্য দিয়ে নাগিনীর বিষাক্ত বিষ বিনাশ করতে হবে। একুশ শুধু ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার বিশেষ দিন নয়। পৃথিবীর সব মানুষের সার্বিক মুক্তির অঙ্গীকার। তাই এই দিনটি আল্লাহর কাছে প্রতিদিনের দোয়া-বরকতের প্রতীক। চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন মজুমদারের সভাপতিত্বে একুশ মেলা পরিষদ চট্টগ্রামের যুগ্ম মহাসচিব খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত একুশের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য ড. মাহমুদ হাসান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পালি বিভাগের চেয়ারম্যা ড. জিনবোধি ভিক্ষু, আওয়ামী লীগ নেতা দীপঙ্কর চৌধুরী কাজল, কলামিষ্ট ও সাবেক ছাত্রনেতা অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, আকবর শাহ থানা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অবাু সুফিয়ান। অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা পরিষদের প্রধান সমন্বয়কারী শওকত আলী সেলিম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কবি সজল দাশ, শিল্পী মুসলিম আলী জনি, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, মুজিবুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করেন উপমা সাংস্কৃতিক অঙ্গন, বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করেন স্বদেশ আবৃত্তি সংগঠন, নরেন আবৃত্তি একাডেমী, দলীয় নৃত্য পরিবেশন করেন শ্যামা নিত্যাঙ্গন। আজ বিকেল ৫টায় একুশ মঞ্চে একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক কৃষ্ণ গোপাল সেন, লেখক ও গবেষক কাইয়ুম নিজামী, ভাষাবিদ ও লেখক অধ্যাপক শামসুল আলম সাঈদ, পুথি সংগ্রাহক ও লেখক ইছহাক চৌধুরীকে একুশে পদকপ্রাপ্ত চারজন গুণীব্যক্তিকে সম্মাননা তুলে দিবেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন ও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন। একুশ মঞ্চে সকাল ৯টায় ভাষা শহীদদের স্মরণে শিশু কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা আবৃত্তি, দেশের গান, সাংষ্কৃতিক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সূচনা হবে।


আরোও সংবাদ