বাককুম ব্রীজ মরণ ফাঁদ!

প্রকাশ:| সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ১০:১১ অপরাহ্ণ

বাককুম ব্রীজ মরণ ফাঁদ!সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও কক্সবাজার প্রতিনিধি, চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের বাককুম ব্রীজ এখন মরণ ফাঁদ। কচ্ছপিয়া কুতুবদিয়াপাড়া সড়কের এ ব্রীজ দীর্ঘদিন ধরে মাঝখানে ফুটো হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে। সংশি¬ষ্ট এলাকার একমাত্র পথ কচ্ছপিয়া কুতুবদিয়াপাড়া সড়ক। ফলে কর্তৃপক্ষ এসব ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ পূর্ননির্মাণ না করে জোড়াতালি দিয়ে চালিয়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহনে চড়েছেন। ইউনিয়নের বাককুম, হাজী পাড়া, স্কুল পাড়া, ও কচ্ছপিয়া শান্তিবাজার এলাকার লক্ষাধিক লোক এসড়ক দিয়ে চলাচল করেন। প্রতিদিন এসড়ক দিয়ে অসংখ সিএনজি, রিক্সা ও মোটর সাইকেল চলাচল করে। কিন্তু দীর্ঘদিনের পুরোনো বাককুম ব্রীজ যানবাহন চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। চরম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে সড়কের বাককুমস্থ ব্রীজ। আকারে অত্যান্ত ছোট হওয়ায় তিন টনের অধিক মালামাল পরিবহন গাড়ি নিয়ে যাতায়ত করা যায়না। যার কারনে এলাকার মানুষ চরম দূর্ভোগে রয়েছেন। বর্তমানে জোড়াতালি করে কোন রকমে যান চলাচল করছে।
সরেজমিন দেখা গেছে, বাককুম ব্রীজের এক পাশে ফুটো হয়ে গেছে। ব্রীজে ট্রাক- ডাম্পার উটতে পারে না। বড় গাড়ি উঠলে ব্রীজের ভিত্তি কাঁপতে থাকে। স্থানীয় লোকজন জানান, ঝুঁকিপূর্ণ এ ব্রীজ স্থায়ী ভাবে নির্মাণের উদ্যোগ না নিয়ে সংশি¬ষ্টরা মাঝে মাঝে জোড়াতালি দেয়। এ ব্রীজ দিয়ে যানবাহন চলাচলের সময় পথচারীদের ব্রীজের এক পাশে দাড়িয়ে থাকতে হয়।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুর রহমান এসড়কের বাককুম ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ স্বীকার করে বলেন, এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়কে স্থায়ী সেতু নির্মান করা দরকার। বাককুম ব্রীজ নির্মানের জন্য নতুন করে প্রক্কালন অনুমোদন হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি কাজ শুরু হবে।


আরোও সংবাদ